অধ্যাপক গোলাম আযমের দাফন সম্পন্ন

0
320

80810_Ghulam-Azam7ঢাকা: লাখো মানুষের উপস্থিতিতে আজ বাদ জোহর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হয়েছে অধ্যাপক গোলাম আযমের জানাজা নামাজ। এ উপলক্ষ্যে বায়তুল মোকাররম এলাকায় মানুষের ঢল নামে। লোকে লোকারণ্য হয়ে যায় জাতীয় মসজিদসহ আশপাশের সব রাস্তা। জানাজা নামাজ শেষে রাজধানীর বড়মগবাজার কাজী অফিস লেনের পারিবারিক কররস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
অধ্যাপক গোলাম আযমের চতুর্থ ছেলে সাবেক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহিল আমান আযমী জানাজার নামাজে ইমামতি করেন।
মানুষের ঢল বায়তুল মোকাররমে:
জানাজার নামাজে অংশগ্রহণের জন্য আজ সকাল থেকেই বায়তুল মোকাররম এলাকায় হাজার হাজার মানুষ জড়ো হতে থাকেন। এক পর্যায়ে বায়তুল মোকাররম মসজিদ ছাপিয়ে আশপাশের সব রাস্তা কানায় কানায় ভরে ওঠে মানুষের ভিড়ে। জোহরের নামাজের আগেই পল্টন মোড় থেকে দৈনিক বাংলা মোড় এবং আশপাশের সব রাস্তা লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়। মানুষের ভিড়ের কারণে এক পর্যায়ে আইনশঙ্খলা বাহিনী মসিজদের আশপাশের সব রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। মসজিদের পূর্ব পাশের শাহান, দক্ষিণ পাশের প্লাজা ছাড়িয়ে মসজিদের উত্তর গেট, দক্ষিণ গেট ও পূর্ব পাশের রাস্তা এবং স্টেডিয়ামের আশপাশ সর্বত্র ছেয়ে যায় মানুষের ভিড়ে। মসজিদের ভেতরে ছিল প্রচণ্ড ঠাসাঠাসি। বায়তুল মোকারমের উত্তর গেটের সামনের রাস্তা থেকে দৈনিক বাংলা মোড় পর্যন্ত বিস্তৃত হয় জানজার নামাজের কাতার। দক্ষিণ পাশের বিশাল প্লাজা চত্বর ছাড়িয়ে প্রবেশপথ পর্যন্ত মানুষ কাতারবন্দি হয়ে দাঁড়ায় জানাজা নামাজের জন্য।
সকাল থেকে বায়তুল মোকাররম মসজিদের চারপাশে বিপুল সংখ্যক আইনশঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়। দুপুরের দিকে দৈনিক বাংলা মোড়ে দুষ্কৃতকারীরা কয়েকটি ককটেল ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করে। এছাড়া জানাজার আগে পরে পুরো এলাকায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করে।

Print Friendly, PDF & Email