অনলাইনের দায়বদ্ধতা সৃষ্টিতে নীতিমালা ও নিবন্ধন কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে: সংসদে তথ্যমন্ত্রী

0
287

ঢাকা: তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যমের দায়বদ্ধতা সৃষ্টির লক্ষ্যে নীতিমালা প্রণয়ন এবং নিবন্ধন কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। এই উদ্দেশ্যে সরকার ‘অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা-২০১৬ প্রণয়নের উদ্যোগ গ্রহন করেছে। সংসদে প্রশ্নোত্তরে আজ মোহাম্মদ ইলিয়াছের (কক্সবাজার-১) এর এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী এই তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীণ শারমিন চৌধুরীর সভাাপতিত্বে সংসদের বৈঠকে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, অবৈধ ও অনিবন্ধিত অনলাইন ভিত্তিক টিভি চ্যানেল, অনলাইন রেডিও, অনলাইন পত্রিকাসমুহকে বিধি-বিধানের আওতায় আনয়নসহ সরকার নিবন্ধন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। এই উদ্দেশ্যে সরকার অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা-২০১৬ প্রণয়নের উদ্যোগ গ্রহন করেছে। ইতোমধ্যেই অনলাইন পত্রিকা সমুহকে নিবন্ধন কার্যক্রমের আওতায় আনয়নের জন্য আবেদন দাখিলের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। উক্ত বিজ্ঞপ্তিমূলে ইতোমধ্যেই ১০৫টি অনলাইন টিভি চ্যানেল, ১৮টি অনলাইন রেডিও এবং ১৭১৭টি অনলাইন পত্রিকা নিবন্ধনের জন্য তথ্য অধিদপ্তরে আবেদন করেছে।
মন্ত্রী আরো জানান, বর্তমানে অনুমোদিন বেসরকারি স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলের সংখ্যা ৪১টি, অনুমোদিত এমএফ বেতারের সংখ্যা ২৮টি, অনুমোদিত কমিউনিটি রেডিও সংখ্যা ৩২টি এবং দৈনিক পত্রিকার সংখ্যা ১০৮৬টি। তিনি জানান, অনলাইন ভিত্তিক টিভি চ্যানেল, অনলাইন রেডিও, অনলাইন পত্রিকার সংখ্যা তথ্য মন্ত্রনালয়ে বর্তমনে লিপিবদ্ধ নেই।

দেশে দৈনিক পত্রিকা ১০৮৬টি

নুরুন্নবী চৌধুরীর (ভোলা-৩) এর প্রশ্নের জববে তথ্যমন্ত্রী জানান, বর্তমানে সারাদেশে পত্রিকার সংখ্যা ১০৮৬টি। এর মধ্যে ঢাকায় ৪০২টি, চট্টগ্রামে ৩৫টি, রাজশাহীতে ১৭টি, কক্সবাজার ২৪টি, নোয়াখালী ২৩টি, ফেনী ২৩টি, যশোর ১৭টি, সিলেট ২৮টি, কুষ্টিয়া ৩১টি, বরিশাল ২১টি, বগুড়া ১৬টি, সিরাজ গঞ্জ ১৪টি, গাজীপুর ৮টি, মানিকগঞ্জ ৬টি, নারায়নগঞ্জ ১৭টি, মুন্সিগঞ্জ ১টি, নরসিংদী ৭টি, ময়মনসিংহ ৩০টি, কিশোরগঞ্জ ৯টি, নেত্রকোনা ৪টি, জামালপুর ১৫টি, শেরপুর ১টি, টাংগাইল ১২টি, ফরিদপুর ১৮টি, গোপালগঞ্জ ১৪টি, মাদারীপুর ৬টি, রাজবাড়ী ৪টি, শরীয়তপুর ৭টি, রাঙ্গামটি ৫টি, বান্দরবান ৫টি, খাগড়াছড়ি ৩টি, কুমিল্লা ১৭টি, ব্রাক্ষনবাড়ীয়া ১৭টি, চাঁদপুর ১৭টি, লক্ষীপুর ১৯টি, হবিগঞ্জ ১৮টি, মৌলভীবাজার ৩টি, সুনামগঞ্জ ৭টি, খুলনায় ২০টি, বাগেরহাটে ৩টি, সাতক্ষীরায় ১০টি, ঝিনাইদপে ৪টি, বরগুনা ৫টি, নওগাঁ ২টি, চাপাইনবাবগঞ্জ ৫টি, নাটোর ৯টি, পাবনা ১৮টি, সিরাজগঞ্জ ১৪টি, জয়পুরহাট ১টি, দিনাজপুর ১৫টি, ঠাকুরগাঁও ২টি, মাগুরায় ২টি, নড়াইলে ১টি, চুয়াডাঙ্গায় ১০টি, মেহেরপুর ২টি, ভোলা ৫টি, ঝালকাঠি৫টি, পিরোজ ৪টি, পটুয়াখালী ৭টি, নীলফামারীতে ৬টি, কুড়িগ্রামে ৭টি, গাইবান্ধায় ৮টি, রংপুর ১৩টি, পঞ্চগড় ১টি দৈনিক পত্রিকা রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email