আজ গায়েবানা জানাজা ও দোয়া, দেশব্যাপী হরতাল সোমবার

0
147

ঢাকা: দলের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদকে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জামায়াতে ইসলামী। জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির মকবুল আহমাদ  গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- আজ  রোববার গায়েবানা জানাজা ও দোয়া এবং আগামীকাল সোমবার দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ হরতাল।

দলটির ভারপ্রাপ্ত আমির বলেন, দুদিনের কর্মসূচি সফল করার জন্য আমি জামায়াতে ইসলামীর নেতা-কর্মী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি এবং দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করছি। বাংলাদেশ ছাড়াও পৃথিবীর যে সকল দেশে বাংলাদেশিরা আছেন, তাদেরকেও গায়েবেনা জানাজা ও দোয়া করার আহ্বান জানাচ্ছি।

আল্লাহপাক যাতে মুজাহিদকে শহিদ হিসেবে কবুল করেন সে জন্য আমি দোয়া করছি এবং তার পরিবার-পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

তিনি বলেন, জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল ও সাবেক মন্ত্রী আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদকে ফাঁসিকাষ্ঠে ঝুলিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আমি এঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির বলেন, আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদ বাংলাদেশের জনগণের নিকট প্রিয় একটি নাম। বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতি চালুর ক্ষেত্রে তার অবদান অবিস্মরণীয়।

চারদলীয় জোট সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রী হিসেবে তিনি যে দক্ষতা ও সততার পরিচয় দিয়েছেন তা বাংলাদেশের জনগণ কখনো ভুলবে না। তিনি ইসলামী আন্দোলনের একজন শীর্ষস্থানীয় নেতা হিসেবে বাংলাদেশের জনগণের নিকট ইসলামের সুমহান আদর্শের দাওয়াত পৌঁছিয়ে দেয়ার জন্য রাতদিন পরিশ্রম করেছেন। বর্তমান স্বৈরাচারী জালেম সরকার এ রকম একজন সৎ, আল্লাহভীরু ও যোগ্য জাতীয় নেতাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করায় জাতি গভীরভাবে শোকাহত ও ক্ষুব্ধ।

মুজাহিদের বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ আনা হয়েছে, তা রাষ্ট্রপক্ষ প্রমাণ করতে পারেনি। তাকে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন। আমি সরকারের এহেন নোংরা রাজনীতির তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি।

তিনি বলেন, জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণেও মুজাহিদের সঙ্গে যে তামাশা করা হয়েছে এবং মিথ্যা অপপ্রচার চালানো হয়েছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়।

তিনি মহামান্য রাষ্ট্রপতির নিকট প্রাণভিক্ষা চেয়েছেন বলে যে মিথ্যা প্রচারণা চালানো হয়েছে তাতে দেশবাসী ক্ষুব্ধ। মুজাহিদের সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যরা শেষ সাক্ষাত করে কারাগার থেকে বেরিয়ে এসে সুস্পষ্টভাবে বলেছেন যে, তিনি রাষ্ট্রপতির নিকট দোষ স্বীকার করেননি, ক্ষমা প্রার্থনা করেননি এবং প্রাণভিক্ষাও চাননি।

মুজাহিদকে হত্যা করে যারা জামায়াতকে নেতৃত্ব শূন্য করার স্বপ্ন দেখছেন, তাদের সে স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না ইনশাআল্লাহ। মুজাহিদের প্রতি ফোঁটা রক্ত এ দেশের ইসলামী ও গণতন্ত্রমনা জনগণকে উজ্জীবিত করবে।

‘হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্স, সংবাদপত্র সংশ্লিষ্ট গাড়ি এবং ওষধের দোকান হরতালের আওতামুক্ত থাকবে’ বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email