আমরা আল্লাহর কাছে বিচার চাইবো: খন্দকার মাহবুব

0
161

ঢাকা: জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ ও বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, তাদের যে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে, তাতে সাক্ষী প্রমাণ সঠিকভাবে বিবেচনা করা হয়েছে কি না, সে ব্যাপারে প্রশ্ন রয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে এখন আমরা আল্লাহর দরবারে বিচার চাইবো। মুজাহিদ ও সালাউদ্দিন কাদেরের রিভিউ আবেদন খারিজের পর এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ মন্তব্য করেন। খন্দকার মাহবুব বলেন, আমাদের দায়িত্ব হলো আসামিকে আইনি সাহায্য করা। আমরা আইনি লড়াই করেছি। লড়াইয়ে হেরে গেছি। তিনি বলেন, আমরা রিভিউতে বলেছি, যেসব অপরাধে দুজন আসামিকে সাজা দেওয়া হয়েছে, তা বৈধ ছিল না।

তিনি বলেন, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী একাত্তর সালে পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে ছিলেন। তিনি হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ত ছিলেন না। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ও রেজিস্ট্রারের স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত সনদ আদালতে দাখিল করা হয়েছে। কিন্তু পাকিস্তান এই বিচারের বিপক্ষে- এই যুক্তিতে ওই সনদ গ্রহণ করা হয়নি। মুজাহিদের বিষয়ে খন্দকার মাহবুব বলেন, মুজাহিদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ না থাকায় ট্রাইব্যুনাল এবং আপিল বিভাগের রায় যথাযথ আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়নি বলে রিভিউতে উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু আদালত তা নাকচ করে দেন। আসামিরা প্রাণভিক্ষা চাইবেন কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, প্রাণভিক্ষা চাইবে কি চাইবে না, এটা আসামির বিষয়। পূর্ণাঙ্গ রায়ের কপি যাওয়ার পর তাঁরা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। তিনি জানান, আবেদন না করলেও রাষ্ট্রপতি চাইলে দণ্ড মওকুফ করতে পারেন। রায় কার্যকর সরকারের বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার চাইলে রায় কার্যকর করতেও পারে, নাও করতে পারে। সরকার চাইলে দণ্ড মওকুফ করে দিতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email