ঈদের পরই সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি

0
156

বিশেষ প্রতিনিধি: ঈদের পরই সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা হতে পারে। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন এই তথ্য জানিয়েছেন। জেলা ছাত্রলীগের নেতৃত্ব পেতে আগ্রহীরা নানাভাবে তদবিরও শুরু করেছেন। ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে আগ্রহীদের কাছ থেকে সম্ভাব্য কমিটিও নিয়েছেন আওয়ামী লীগের জেলা কমিটির দায়িত্বশীলরা। ২০১০ সালের অক্টোবরে সভাপতি ও সম্পাদকসহ ১০ জনের পদবি উল্লেখ করে সম্মেলন ছাড়াই জেলা ছাত্রলীগের কমিটি করে দিয়েছিলেন তৎকালীন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। এই কমিটির বিরুদ্ধে ঐ সময় ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা মিছিল-সমাবেশ বিক্ষোভ করলেও শেষ পর্যন্ত ঐ কমিটির নেতৃত্বেই ছাত্রলীগের কার্যক্রম চলতে থাকে। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মতানৈক্যতাও ছিল দীর্ঘদিন। ২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটি গঠন করা হয়। এরপর থেকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফজলে রাব্বি স্মরণ ও সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমেদ চৌধুরীকে কর্মসূচিতে একসঙ্গে দেখা যায়।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দকে ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে জেলা সম্মেলন করার নির্দেশ দিয়েছেন। অন্যদিকে, ছাত্রলীগের নেতৃত্ব পেতে আগ্রহীরাও নানাভাব তদবির করছেন, কেউ কেউ কমিটিও জমা দিয়েছেন। জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ সুজন ও ছাত্রলীগ নেতা দেওয়ান জিসান রাজাকে সভাপতি ও সম্পাদক প্রত্যাশা করে একটি কমিটি সংশ্লিষ্টদের দেওয়া হয়েছে বলে সংগঠন সূত্রে জানা গেছে। অন্যদিকে, সভাপতি পদে রফিক আহমদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক পদে দীপংকর কান্তি দে, তপু হাবিব, ঈশতিয়াক পিয়াল, আশরাফুল ইসলাম আগ্রহী বলেও সংগঠনের একাধিক সূত্রে জানা গেছে। এরাও কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে যার যার মত যোগাযোগ চালিয়ে আসছেন।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফজলে রাব্বী স্মরণ বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য কাজ করছি, সকল উপজেলার সম্মেলন শেষ করে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জেলা সম্মেলন করতে চাই, এই সম্মেলনের মাধ্যমেই কেন্দ্রীয় নেতারা কমিটি ঘোষণা দেবেন বলে প্রত্যাশা করছি’। জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ সুজন বলেন,‘ছাত্রলীগের একটি শক্তিশালী-সক্রিয় কমিটি চাই আমরা, কেন্দ্রীয় নেতারা নিশ্চয়ই সুনামগঞ্জের ছাত্রলীগের খোঁজ খবর রাখেন, সেই অনুযায়ীই ব্যবস্থা নেবেন তারা, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সংগঠনের জন্য কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন, আমি সেভাবেই করছি’। ছাত্রলীগ নেতা দেওয়ান জিসান রাজা বলেন,‘আমরা সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সঠিক নেতৃত্ব চাই, জেলার প্রত্যেক ইউনিট কমিটিও যোগ্য চাই, আমি কেন্দ্রীয় নেতাদের বলেছি পারিবারিকভাবেই আওয়ামী লীগের রাজনীতির প্রতি কমিটমেন্ট রয়েছে আমাদের, আমরা ছাত্রলীগকে শক্তিশালী করতে কেন্দ্রীয় সহযোগিতা চাই’। ছাত্রলীগ নেতা দীপংকর কান্তি দে বলেন,‘শুনেছি সম্মেলন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, সম্মেলন হলে বা কেন্দ্রীয় নেতারা কমিটি ঘোষণা দিলে যোগ্য-পরিশ্রমি, সংগঠনের বিভিন্ন কর্মসূচিতে জমায়েত দিয়ে থাকে যারা এবং সংগঠনের প্রতি আন্তরিকদেরই দায়িত্ব দেবেন বলে আশা করছি আমরা’। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন সোমবার বিকালে এ প্রতিবেদককে বলেছেন, ‘ঈদের পর পরই সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, সম্মেলন করতে না পারলে কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে সুনামগঞ্জের কমিটি ঘোষণা করা হবে’।

Print Friendly, PDF & Email