এডিনবড়ায় থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপ এর আয়োজনে বারন্স নাইট পালন

0
177

000
নিজস্ব প্রতিনিধি: স্কটল্যান্ড এর রাজধানী এডিনবড়ায় থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপ এর আয়োজনে ইস্টার্ন পাভিলিয়নে দ্বিতীয় বারের মত বাংলাদেশী কমিউনিটি পালন করল বারন্স নাইট। এটি ছিল স্কটিশ সাহিত্য পুরুষ বলে খ্যাত স্কটল্যান্ড এর জাতীয় কবি রবার্ট বারন্স এর ২৫৬তম জন্ম বার্ষিকী। স্কটল্যান্ড সহ সারা বিশ্বের সাহিত্য প্রেমীরা দিনটি অত্যন্ত সন্মাননার সাথে পালন করে। রবার্ট বারন্স ১৭৮৭ সালের ২৫শে জানুরী স্কটল্যান্ডের এয়ারশায়ার এর ছোট্ট গ্রাম এলয়ের এক কৃষক পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন এবং ২১শে জুলাই ১৭৯৬ সালে মাত্র ৩৭ বছর বয়সে ডাম্ফ্রীজ এ জীবনের মায়া ত্যাগ করেন। তার বিখ্যাত লেখা গুলোর মধ্যে আউল্ড ল্যাং সেয়াং, টু এ মাউস, এ ম্যান’স এ ম্যান ফর ‘এ’ দ্যাট, এ ফন্ড কিস, স্কট ওয়া হি, ট্যেম ওঁ ‘শান্তার’, হ্যালুইন, দ্যি ব্যাটেল অফ শিরামিওর, রেড রেড রউজ বিশেষ ভবে উল্লেখযোগ্য। স্কটিশ সাহিত্য ও কৃষ্টির বিবর্তন ঘটে রবার্ট বারন্স এর লেখায়। লাল গোলাপ কে ভালবাসার নিদর্শন এর স্বরূপ হিসাবে প্রিথিবীতে পরিচিত করেন তার কবিতা গানের মাধ্যমে।
স্কটিশ ঐতিহ্যবাহী খাবার ‘হাগিস’ ১৭৮৭ সালে তার লেখা ‘এড্রেস টু এ হাগিস’ এর মাধ্যমে স্কটল্যান্ড এর জাতীয় খাবার হিসাবে পরিগনিত হয় যা প্রতি বছর ২৫শে জানুরী রবার্ট বারন্স এর জন্ম দিনে পরিবেশন করা হয়। এই পরিবেশন ও যে খুব সহজ তা নয়। এর জন্য রয়েছে বেশ কিছু রীতি রেওয়াজ। যার মধ্যে রয়েছে, স্কটিশ বাদ্য বাজানোর মাধ্যমে অথিতীদের অভ্যর্থনা এর পর অথিতীদের উদ্দেশ্যে চেয়ারম্যান এর বক্তব্য তার পর শেলকারক গ্রেস পালা ক্রমে এড্রেস টু এ হাগিস, জল খাবার, দ্যি ইম-মরটাল মেমরী, টোষ্ট টু দ্যি লাছি , রিপ্লাই টু দ্যি টোষ্ট অব লাছি। ভোট অফ থ্যাংকস এর পর আউল্ড ল্যাং সেয়াং পরিবেশনের মাধ্যমে সমাপ্তি।
২৫শে জানুয়ারীর পুরা আয়োজনটি দ্বিতীয় বারের মত হলেও খুব সহজ ছিল না। তার পরও এডিনবড়ার বসবাসরত প্রবাসী সাহিত্য প্রেমীরা থেমে থাকেনি। থিসল শাপলার ব্যানারে আয়জন করে বারন্স নাইট এর।
মধ্য রাতের প্রারম্ভে স্কটিস ব্যাগ পাইপ এর মূর্ছনায় অতিথীদের অভ্যর্থনার পর স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপ এর চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম ‘শেলকারক গ্রেস’ পাঠ করেন সঙ্ঘঠনের প্রধান উপদেষ্টা লর্ড অব গ্লেনকো জনাব সাহানুর চৌধুরী ‘এড্রেস টু এ হাগিস’ পাঠ ও অভিনয় করেন সহ সম্পাদক আ স ম মিরন, ইম-মরটাল মেমরীতে আলকপাত করেন চ্যানেল আই এর রিপোর্টার হুমায়ুন কবীর, নরমান মেইভারস এবং ইঞ্জিনিয়ার কামরুল হাসান।
সঙ্ঘঠনের ভাইস চেয়ারম্যান ম ইউ আহম্মদ জনি আবৃত্তি করেন রবার্ট বারন্স এর অন্যতম জনপ্রিয় কবিতা ‘রেড রেড রউজ’ ভোট অব থ্যাংকস প্রদান করেন সম্পাদক খন্দকার জাহাঙ্গীর।
বাংলা সাহিত্যের উপরও রবার্ট বারন্স এর প্রভাব গভীরভাবে পরিলক্ষিত হয়। মান্নাদের গাওয়া জন প্রিয় গান ‘যদি হিমালয় আল্পস এর সমস্ত জমাট বরফ’ এর কথা এবং বারন্স এর লেখা রেড রেড রউজ এর ভাবার্থ এক- ই। আবার বারন্স এর লেখা ‘এয়া ব্যাঙ্ক এন্ড ব্রেইসেস’ এর আনুকরনে বাংলা সাহিত্যের কবিগুরু রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর লিখেছেন ‘ফুলে ফুলে ডলে ডলে’ গানটি।
জল খাবার শেষে ‘আউল্ড ল্যাং সেয়াং’ পরিবেশনের মাধ্যমে সমাপ্তির কথা থাকলেও আগতরা আবেগে আপ্লুত হয়ে এক এর পর এক স্মরণ করতে থাকেন রবি ঠাকুর, নজরুল, সেক্সপিয়ার, মাইকেল মধুসদন দত্ত সহ সমস্ত কবি সাহিত্যিকদের। এরই মধ্যে স্থানিয় শিল্পিদের গানে গানে মত্ত হয়ে উঠে ইস্টার্ন পাভিলিয়ন। এডিনবড়া নেপিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চ শিক্ষার লক্ষে সদ্য আগত ছাত্র মোঃ ইলমন রহমান এর লালন সঙ্গীত পরিবেশনা অনুস্টানে নিয়ে আসে ভিন্ন মাত্রা। উল্লেখ্য ইলমন এর পরিবেশনের পর সদস্য আনয়ারের আহব্বানে ইলমনকে গ্রহন করা হয় সদস্য হিসাবে।
ভোট অব থ্যাংকস প্রদান করেন সম্পাদক খন্দকার জাহাঙ্গীর। থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপ প্রতি বছর ই এই ধরনের অনুস্টানের অঙ্গীকার করে।

Print Friendly, PDF & Email