ওবামা-নেতানিয়াহুর ব্যক্তিগত সম্পর্কে উত্তেজনা

0
443

202.jpegওয়াশিংটন: মার্কিনস প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এবং ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু একে অপরের পছন্দ করেন না অনেক বছর ধরেই। অপছন্দের বিষয়টি তারা এখন লুকানোরও চেষ্টা করেন না।  দীর্ঘ সময় মার্কিন-ইসরাইল সম্পর্ক পর্যবেক্ষণকারীদেরকে স্মরণ করতে একরকম সংগ্রামই করতে হবে যে সর্বশেষ কবে এই দুই দেশের নেতাদের মধ্যে ব্যক্তিগত সর্ম্পক এত খারাপ ছিল। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী তাদের সম্পর্ককে তুলনা করেছেন ঝগড়া বাধানো ‘পুরানো দম্পতি’ হিসেবে।
সর্বশেষ উদাহরণ হিসেবে গত মঙ্গলবার তাদের অকার্যকর সর্ম্পকের বিষয়টি আরো পরিষ্কার হয়, যখন ওবামা প্রশাসনের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা ইসরাইলি নেতাকে উদ্ধৃত করে বলেন, তিনি হলেন ‘মুরগির বাচ্চা’ যিনি কার্যকরভাবে যুদ্ধের আলাপ করতে পারেন না। তিনি নেতানিয়াহুকে ‘কাপুরুষ’ বলেও মন্তব্য করেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা সাংবাদিক জেফ্রি গোল্ডবার্গকে যেসব কথা বলেছেন, গত কয়েক বছর ধরে ওবামার প্রশাসনের শীর্ষ কর্তারা ব্যক্তিগতভাবে এসব কথাই বলতেন।
যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক সাবেক শান্তি আলোচক আরন ডেভিড মিলার বলেন, ‘নেতানিয়াহু ও ওবামার মধ্যে একটি অকার্যকর সম্পর্ক বিরাজ করছে।’
ওয়াশিংটনের ইসরাইলপন্থী নীতি সংস্থার একজন বিশিষ্ট সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, ‘এই দুই নেতা একে অপরকে পছন্দ করেন না। এমনকি একে অপরকে পছন্দ করার ভান পর্যন্ত দেখান না।’
তবে গোল্ডবার্গের নিবন্ধে নেতানিয়াহু এক প্রতিক্রিয়ার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আমাদের রাষ্ট্রকে বিপন্ন করে এমন বিষয়ে তিনি ছাড় দিতে মোটেই প্রস্তুত না।’ বিভিন্ন বিষয় নিয়েই তাদের মধ্য সর্ম্পকের অবনতি ঘটেছে। গোল্ডবার্গের রির্পোট হতে জানা যায়, ইসরাইলি নেতা হোয়াইট হাউস সর্ম্পকে বলেন, একটি প্রশাসনের অপমান গত দুই বছর যাবত চলছে।

Print Friendly, PDF & Email