কাউন্সিলের পর গণতন্ত্র উদ্ধারে আন্দোলন আরো জোরদার হবে: বিএনপি

0
140

ঢাকা: কাউন্সিলের পর গণতন্ত্র উদ্ধারে আন্দোলন আরো জোরদার হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি। একইসঙ্গে সরকারি কোনো হস্তক্ষেপ না হলে কাউন্সিলে কোনো বাধা আসবে না বলেও বিশ্বাস দলটির। শুক্রবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ এসব কথা বলেন।
রিজভী বলেন, এবারের কাউন্সিলের মাধ্যমে একটি গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখবে। এই কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে বিএনপি আরো এক ধাপ শক্তিশালী সংগঠন হয়ে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তিনি আরও বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দেশের সর্বস্তরের জনতা আগামী দিনের দেশ রক্ষার গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সাড়া দেবেন। ফলে সে আন্দোলন সফল হবে, মানুষ ফিরে পাবে গণতন্ত্র ও তাদের বাক-স্বাধীনতা।
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব বলেন, বিএনপির কাউন্সিলকে ঘিরে ইতোমধ্যে সারা দেশে দলটির নেতা-কর্মী ও কোটি কোটি সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দিপনা ও প্রাণচাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। সাধারণ মানুষের মধ্যে এই কাউন্সিলকে ঘিরে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। কাউন্সিলের প্রস্তুতিও প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে। কাউন্সিলকে সফল করতে গঠিত সকল উপ-কমিটি তাদের কার্যক্রম শতভাগ সম্পন্ন করেছে। সব মিলিয়ে শনিবারের জাতীয় সম্মেলন ও কাউন্সিল একটি যুগান্তকারী রাজনৈতিক ঘটনা হিসেবে ইতিহাসে স্থান পাবে।
রিজভী জানান, কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে সারা দেশে আট থেকে নয় হাজার ডেলিগেটস কার্ড বিতরণ করা হয়েছে। সারা দেশ থেকে কাউন্সিলর ও ডেলিগেটসরা ইতোমধ্যে ঢাকায় পৌঁছে গেছেন। দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও বিভিন্ন ইউনিট থেকে আগত নেতারা অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে ডেলিগেটস ও কাউন্সিলর কার্ড সংগ্রহ করেছেন। এজন্য তাদেরকে দলের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, ‘কাউন্সিলরদের সংখ্যা কত হবে, তা সন্ধ্যার মধ্যে জানাতে পারব। তবে আমাদের কাউন্সিলের সংখ্যা প্রায় ৩ হাজারের মতো হবে।’ কাউন্সিল সুষ্ঠু ও সুশৃঙ্খলভাবে সফলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন বিএনপির এ যুগ্ম মহাসচিব।
সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, আসাদুল করিম শাহীন, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা শিরিন সুলতানা, ঢাকা মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক কাজী আবুল বাশার প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email