কারচুপি করে ভোট কেড়ে নেওয়া হয়নি: প্রধানমন্ত্রী

0
139

image_149724.hasinaaa
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপির ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন বর্জনের সমালোচনা করে, দলটির পক্ষ থেকে আনা কারচুপির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, কারচুপি হলে তাদের মেয়র প্রার্থীরা লাখ লাখ ভোট পেলেন কী করে? আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ে বিএনপি-জামায়াতের আন্দোলনের নামে বাস পোড়ানোয় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে অনুদানের চেক হস্তান্তর করছিলেন। চেক দেওয়ার পর তাদের সহ উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মানুষ বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করেছে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বিএনপিকে একটি কুৎসিত দল বলে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী এই প্রশ্নও তোলেন যে, দলটিকে মানুষ এত ভোট দেয় কি করে? তিনি এই দলের প্রতি এখন কেবলই ঘৃণা দেখাতে সাধারণ মানুষের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, যারা মানুষের পেটে লাথি মারে, পুড়িয়ে মারে তাদের প্রতি কেবল ঘৃণা, ঘৃণা আর ঘৃণা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, কারচুপি করে কারও ভোট কেড়ে নেওয়া হয়নি। আমরা জানি না কি কারণে বিএনপি প্রত্যাহার করে নিল। তাদের মেয়র প্রার্থীরা লাখ লাখ ভোট পেয়েছে। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া ক্ষমতা থাকতে কোনো মানুষ ভোট দিতে যেতে পারে নি। ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচন, মিরপুর, মাগুড়ার উপ-নির্বাচনের কথা উল্লেখ করেন তিনি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা সেই পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটাতে পেরেছি। ইলেক্ট্রনিক ভোটিং সিস্টেম করতে চেয়েছিলাম, এতে কারচুপি করার সুযোগ থাকে না। কিন্তু খালেদা জিয়া চাননি। খালেদা জিয়ার জ্বালাও পোড়াও আন্দোলনের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার কারণে মানুষ কাজ করে খেতে পারেনি। দোকানপাট বাজার বন্ধ ছিলো খেটে খাওয়া মানুষ কষ্ট পেয়েছে। বিএনপি মানুষ মারে, আর মানুষ তাদের ভোট দেয়। তাদের কি বিবেচনাও নেই? প্রশ্ন তোলেন তিনি। শেখ হাসিনা আরও বলেন, এবার সুস্থ পরিবেশে নির্বাচন হয়েছে। তাদের উদ্দেশ্য ছিল খুন খারাপি করে নির্বাচন বয়কট করা। যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে, মানুষের সর্বনাশ করে এদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছাড়া আর কিছুই থাকতে পারে না।
ঢাকা ও চট্টগ্রামবাসী আজ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে আগামীতে দেশবাসী তাদের প্রত্যাখ্যান করবে, মন্তব্য প্রধানমন্ত্রীর। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সদস্যদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা স্বজন হারিয়েছেন তাদের দুঃখ আমি বুঝি। কারো বাবা, কারো স্বামী, কারো সন্তান, কারো মা হারিয়ে গেছে। তাদের আর ফিরিয়ে দিতে পারবো না। তিনি বলেন, আমি সাধ্যমত আপনাদের সহযোগিতা করলাম। আমি জানি এটা প্রয়োজনের তুলনায় অতি সামান্য। তারপরেও আপনার দোয়া করবেন যেনো এভাবে আপনাদের সহযোগিতা করে যেতে পারি।

Print Friendly, PDF & Email