Home আঞ্চলিক কোটচাঁদপুরে শিশু অপহরণের পর ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী বারো ঘন্টা পর...

কোটচাঁদপুরে শিশু অপহরণের পর ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী বারো ঘন্টা পর উদ্ধার

271
0

kotchandpur-pic-15-01-15
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: কোটচাঁদপুরে পাঁচ বছরের এক শিশু পুত্রকে অপহরণের পর পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করা হয়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ অপহরণের বারো ঘন্টা পর চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলা থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে। পুলিশ জানায়, কোটচাঁদপুর উপজেলার বলরামনগর গ্রামের মশিয়ার রহমানের পুত্র ব্র্যাকের প্রি-প্রাইমারী স্কুলের ছাত্র সাব্বির হোসেন(৫) বুধবার দুপুর ১টার দিকে বাড়ীর কাছে খেলার সময় অপহরণ হয়।
পরিবারের সদস্যরা সাব্বিরের খোঁজা খুজির এক পর্যায়ে বিকাল পাঁচ টার দিকে অপহরনকারীরা সাব্বিরের পরিবারের কাছে মোবাইল করে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। সাব্বিরের পরিবার ঘটনাটি থানা পুলিশ কে জানায়। কোটচাঁদপুর থানার সেকেন্ড অফিসার আশিকুর রহমান সাব্বিরের পিতাকে সাথে নিয়ে সাব্বিরের উদ্ধার অভিযান শুরু করে। পুলিশের কথা মতো সাব্বিরের পিতা মোবাইলে অপহরণকারীদের সাথে যোগাযোগ করে মুক্তিপণের অর্থ দিতে রাজি হয়। অপহরণকারীরা সাব্বির কে নেওয়ার জন্য তার পিতাকে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর বাসষ্ট্যান্ডে সন্ধ্যায় আসতে বলে। রাত আটটার দিকে সাদা পোশাকধারী পুলিশ সাব্বিরের পিতাকে সাথে নিয়ে জীবননগর বাসষ্ট্যান্ডে হাজির হয়ে অপহরণকারীদের সাথে যোগাযোগ করে। অপহরণকারীরা সাব্বিরের পিতাকে জানায় রাত হয়ে গেছে তাই তাদের একই উপজেলার হাসাদাহ বাজারে আসতে হবে। হাসাদাহ বাজারে এসে আবারো অপহরণকারীদের সাথে যোগাযোগ করা হয়। অপহরণকারীর সাথে কথোপকথনে অপহৃত সাব্বিরের পিতা মশিয়ার রহমান অপহরণকারীকে চিনে ফেলেন। তারপরও অপহরণকারীদের বলা হয় এখনই সাথে পাঁচ লাখ টাকা নেই। কাছে মাত্র আট হাজার টাকা আছে। এই টাকা নিয়ে সাব্বিরকে মুক্তি দেওয়া হোক, পরে দাবীকৃত সমুদয় টাকা পরিশোধ করা হবে। অপহরণকারীরা এই প্রস্তাবে রাজি হয় এবং আট হাজার টাকা বিকাশ করে। আট হাজার টাকা বিকাশ করার পরই অপহরণকারীরা মোবাইল বন্ধ করে দেয়। এই অবস্থায় পুলিশ রাতেই ১টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দরিয়াপুর পুলিশ ক্যাম্প থেকে ফোর্স নিয়ে পাশ্ববর্তী মজলিশপুর গ্রামে সাহাবুদ্দিনের পুত্র বিল্লাল (৩০) এর বাড়ী অভিযান চালায়। পুলিশ বিল্লালের বাড়ী থেকে অপহৃত সাব্বিরকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে আসে। পুলিশ অপহরণকারী বিল্লালকে আটক করতে পারেনি।
উদ্ধার হওয়ার পর সাব্বির পুলিশ ও সাংবাদিকদের জানায়, বিস্কুট খেতে বাজারে যাবার কথা বলে গাড়িতে তাকে তুলে নিয়ে যায়। সাব্বিরের পিতা মশিয়ার রহমান জানান অপহরণকারী বিল্লাল তাদের পূর্ব পরিচিত। এই ঘটনায় কোচাঁদপুর থানায় মামলা হয়েছে।

Previous articleঅশুভ শক্তি প্রতিহতে সেনাবাহিনী প্রস্তুত: প্রধানমন্ত্রী
Next articleসিআইডি প্রধানসহ পুলিশের উচ্চপর্যায়ে রদবদল