কোন সাহসে নেতানিয়াহু প্যারিসে, প্রশ্ন এরদোগানের

0
160

Erdugan 01
আঙ্কারা: বিদ্রুপাত্মক পত্রিকা শার্লি এবদোর কার্যালয় আক্রান্ত এবং কয়েকজন কার্টুনিস্ট নিহত হওয়ার ঘটনার জের ধরে পশ্চিমাদের কপট দৃষ্টিভঙ্গির কঠোর সমালোচনা করেছেন তুরস্কের স্পষ্টভাষী প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।  সাথে সাথে তিনি ইউরোপে ইসলামভীতি ও মুসলিম বিরোধী কার্যকলাপ বন্ধে ব্যর্থতার জন্য পশ্চিমা নেতৃত্বের সমালোচনা করেন।
তুরস্ক ভ্রমণরত ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সাথে এক মঞ্চে বক্তৃতাকালে এরদোগান রবিবার অনুষ্ঠিত প্যারিস র্যা লিতে (শোভাযাত্রা) অংশ নেয়ায় ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুরও কঠোর সমালোচনা করেন।
তিনি বলেন, কিভাবে এমন একজন লোক যিনি কিনা রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে গাজার ২৫০০ নিরস্ত্র মানুষকে হত্যা করেছেন, তিনি আবার প্যারিস র্যািলিতে মানুষের উদ্দেশে হাত নাড়ান, যেন মানুষ অধীর আগ্রহে তার জন্য অপেক্ষা করছে? কোন সাহসে তিনি সেখানে যান?
‘আপনাকে আগে ঐ সমস্ত শিশু ও নারীদের দায় নিতে হবে যাদেরকে আপনি হত্যা করেছেন’ নেতানিয়াহুর উদ্দেশ্যে বলেন তিনি।
তিনি আরো বলেন, পশ্চিমাদের কপটতা স্পষ্ট। মুসলমান হিসেবে আমরা কখনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অংশ নেইনি। এরপরও পশ্চিমারা মুসলমানদের বিরুদ্ধে জাতিগত বিদ্বেষ থেকে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলছে এবং ইসলামভীতি ছড়াচ্ছে।
পশ্চিমা দেশের নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যেসব দেশে মসজিদ আক্রান্ত হয়েছে সেসব দেশের প্রশাসনকে এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে হবে।
তিনি বলেন, মুসলিম বিশ্বকে নিয়ে গেম খেলা হচ্ছে, এ ব্যাপারে আমাদের সতর্ক হওয়া দরকার।
এরদোগান ফ্রান্সের নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যর্থতার কারণে প্যারিস হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে বলে মনে করেন।  তিনি বলেন, ফরাসী নাগরিকরা এই হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে, আর মুসলমানরা এর মূল্য দিচ্ছে। তিনি বলেন, তুরস্ক ইসরাইলের এই লাগামহীন ও বেআইনি কার্যকলাপের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে।
এছাড়া এরদোগান সিরিয়ার গৃহযুদ্ধের চার বছর পরও সিরীয় শরণার্থীদের আশ্রয় দেয়ার ব্যাপারে পশ্চিমাদের উদাসীনতার সমালোচনা করেছেন, যেখানে তুরস্ক ১৬ লাখ সিরীয়কে আশ্রয় দিয়েছে।
তুরস্ক থেকে প্রেসিডেন্ট এরদোগোনের পক্ষে প্রধানমন্ত্রী আহমেত দাভোতোগলু প্যারিসের র্যা লিতে অংশ নিয়েছিলেন।
তিনিও ইউরোপের ইসলামভীতির সমালোচনা করেছেন এবং মসজিদে হামলার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email