ক্রসফায়ারের নামে গণহত্যার মহোৎসবে মেতে উঠছে সরকার: নগর জামায়াত

0
438

jamat
সিলেট মহানগর জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেছেন, দেশের মুক্তিকামী জনতার জেগে উঠা দেখে জনগন কর্তৃক প্রত্যাখ্যাত অবৈধ সরকার জুলুম-নিপীড়ন- নির্যাতন, গণগ্রেফতার ও ক্রসফায়ার করে নিরীহ মানুষকে হত্যার নৃশংসতায় মেতে উঠেছে। দেশপ্রেমিক জনতার শান্তিপুর্ন আন্দোলন কর্মসুচী ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতেই সরকারের নির্দেশে পরিকল্পিতভাবে পেট্রোল বোমা দিয়ে সহিংসতা সৃষ্টি করে নিরীহ মানুষকে পুড়িয়ে মারা হচ্ছে। নিরীহ নেতাকর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে বন্দুক যুদ্ধের নাটক সাজিয়ে ক্রসফায়ার করে হত্যা করে আন্দোলন দমানো যাবে না। জনতার আন্দোলন চলছে, বিজয় না হওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন দমানো যাবে না।
অবিলম্বে সিলেট মহানগর জামায়াতের আমীর এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের, নায়েবে আমীর হাফিজ আব্দুল হাই হারুন, সেক্রেটারী মাওলানা সোহেল আহমদ, সহকারী সেক্রেটারী মো: শাহাজাহান আলী সহ ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলায় আটক সকল রাজবন্দীদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।
রোববার ২০ দলীয় জোট আহুত টানা ৭২ ঘন্টার হরতালের ১ম দিন হরতাল চলাকালে নগরীর বিভিন্ন স্থানে পিকেটিং শেষে পৃথক স্থানে মিছিল সমাবেশ করেছে সিলেট মহানগর জামায়াত। মিছিল পরবর্তী পৃথক সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন। নগরীর কুমারপাড়াসহ বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত পৃথক মিছিলে অংশ নেন সিলেট মহানগর জামায়াত নেতা, রফিকুল ইসলাম মজুমদার, মু. আনোয়ার আলী, মু. শাহেদ আলী, ইসলামী ছাত্র শিবির নেতা সোহেল আহমদ, শামসুর রহমান জাবাল ও মামুন হোসাইন প্রমুখ।
নেতৃবৃন্দ ২০ দলীয় জোট আহুত টানা ৭২ ঘন্টার হরতালের ১ম দিন শান্তিপুর্ন সর্বাত্মক হরতাল পালন করায় সিলেটবাসীকে অভিনন্দন জানান। একই সাথে সোম ও মঙ্গলবারও শান্তিপুর্ন হরতাল, চলমান টানা অবরোধ সফল করার জন্য পরিবহন মালিক, শ্রমিক ব্যাবসায়ী নেতৃবৃন্দ সহ সিলেটবাসীর প্রতি আহ্বান জানান তারা।

Print Friendly, PDF & Email