খালেদার ওপর হামলার প্রতিবাদে বুধবার হরতাল

0
129

Hartal
ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ওপর সরকারি দলের নেতাকর্মীদের হামলার প্রতিবাদে বুধবার সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে বিএনপি। তবে সিটি নির্বাচনের কারণে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী হরতালের আওতামুক্ত থাকবে। সোমবার সন্ধ্যায় নয়াপল্টনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এ হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
একইসঙ্গে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী বাদে সারাদেশে মঙ্গলবার বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি। এর আগে সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের বাস প্রতীকে ভোট চাইতে গিয়ে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন খালেদা জিয়া।
হামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়ির (ঢাকা মেট্রো-গ-১৩২৬১২) গ্লাস ভেঙ্গে গেছে। এছাড়া তার নিরাপত্তা টিম-সিএসএফের চারটি গাড়িসহ অন্তত ১০টি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। হামলায় এক সিএসএফ সদস্য ও চার সাংবাদিকসহ অন্তত ১১জন আহত হন।
মওদুদ আহমদ বলেন, নির্বাচনী প্রচারণার সময় বিএনপি চেয়ারপারসনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে তার গাড়িবহরে ভাঙচুর ও সশস্ত্র হামলার তীব্র নিন্দা জানাই। এমনকি তারা অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর করেছে। এটি সরকারের ফ্যাসিবাদী ও অগণতান্ত্রিক মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা পুলিশের সহযোগিতায় বেগম জিয়ার নির্বাচনী প্রচার অভিযানের প্রতিটি স্থানে বাধা দেয়া সত্ত্বেও তিনি তার প্রচার অভিযান অব্যাহত রেখেছেন।
বিএনপির জ্যেষ্ঠ এ নেতা দাবি করেন, বিএনপি চেয়ারপারনের বাসার সামনে থেকে পুলিশি প্রহরা প্রত্যাহার এবং তার গাড়িবহর থেকে পুলিশি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করা থেকেই বুঝা যায় হামলা সরকারের পূর্ব পরিকল্পনার অংশ।
তিনি বলেন, আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনেই সরকার এ ধরনের ফ্যাসিবাদী ও সন্ত্রাসী তাণ্ডবের আশ্রয় গ্রহণ করেছে। এটি সরকারের দুর্বলতারই প্রতিফলন।
মওদুদ আহমদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও তার মন্ত্রীরা অতি সম্প্রতি বিএনপি চেয়ারপারসনকে নির্বাচনী প্রচারণায় বের হলে প্রতিহত করার যে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটাই তাদের সশস্ত্র গুণ্ডাদের আজকের সন্ত্রাসী হামলায় উস্কানি দিয়েছে।
তিনি বলেন, ‘পুলিশের আইজিপিও নির্বাচন কমিশনে অনুষ্ঠিত আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভায় তার বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে প্রতিহত করতে প্রয়োজনে আইন প্রণয়নের জন্য ওপেন বক্তব্য দিয়েছে। বিএনপির জ্যেষ্ঠ এ নেতা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, আমরা সরকারকে স্পষ্টভাবে বলে দিতে চাই- এ ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড অব্যাহত রেখে আমাদেরকে ভিন্ন চিন্তা করতে বাধ্য করবেন না।

Print Friendly, PDF & Email