খালেদার দেওয়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের বিষয়ে আগে থেকে তৈরি ছিল আওয়ামী লীগ: ফখরুল

0
267

ঢাকা: ক্ষমতা হারানোর ভয়ে আওয়ামী লীগ ‘অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য’ খালেদা জিয়ার দেওয়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের বিষয়ে আগে থেকে তৈরি ছিল বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ যে রিঅ্যাকশন দিয়েছেন, তার ভাষাটা দেখবেন- সেই ভাষার মধ্যে বুঝা যায়, সেটা আগে থেকে তৈরি করা। যেমন, বাজেট দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একটা মিছিল বের হয় না- ‘মানি না মানি না’, ‘গণবিরোধী বাজেট মানি না’- এরকম ব্যানার তৈরি করা থাকে।

“ঠিক একইভাবে আগে থেকে তারা তৈরি করে রেখেছিল- এটাকে তারা প্রত্যাখান করবে। সেজন্য বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রস্তাব শেষ হওয়ার সাথে সাথে আমাকে একজন সাংবাদিক বললেন, আওয়ামী লীগ এই প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছে, প্রত্যাখ্যান করেছে।”

শুক্রবার বিকালে নির্বাচন কমিশন নিয়োগে বাছাই কমিটি গঠনের রূপরেখা, প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনারদের যোগ্যতা এবং ‘সব দলের অংশগ্রহণে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ’ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের কয়েকটি ধারার সংশোধনসহ ১৩টি প্রস্তাব দেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

ওই প্রস্তাবের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের খালেদা জিয়ার প্রস্তাবকে ‘অন্তঃসারশূন্য’ ও ‘জাতির সাথে তামাশা’ আখ্যা দিয়ে বলেন, “সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়া দীর্ঘ ৪৫ মিনিট ধরে যে বক্তব্য দিয়েছেন, তাতে নতুন কিছু নেই।”

জিয়া নাগরিক ফোরামের সভাপতি মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা এবিএম মোশাররফ হোসেন, আবু নাসের মো. রহমাতুল্লাহ, জিয়া নাগরিক ফোরামের কে জামান, মুসা ফরাজী, বাস্তহারা দলের শরীফ হাফিজুর রহমান টিটু, কর্মজীবী দলের আলতাফ হোসেন সরদার, দেশনেত্রী ফোরামের কেএম জাহাঙ্গীর আলম ও ঘুরে দাঁড়াও বাংলাদেশের কাদের সিদ্দিকী বক্তব্য রাখেন।

Print Friendly, PDF & Email