খুৎবা, ওয়াজ-মাহফিলে নজরদারির সিদ্ধান্তে জামায়াতের উদ্বেগ

0
149

ঢাকা: জুমার খুৎবা-বয়ান, ওয়াজ মাহফিলে নজরদারির বিষয়ে সরকারের মন্ত্রী পরিষদের গৃহীত সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান। মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, মন্ত্রী পরিষদে গৃহীত এ সিদ্ধান্তের কারণে গোটা জাতির সাথে আমরাও বিস্মিত এবং উদ্বিগ্ন। জুমার খুৎবা-বয়ান, ওয়াজ মাহফিলে নজরদারির বিষয়ে সরকারের মন্ত্রী পরিষদে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে মূলত এ দেশের আলেম সমাজের কণ্ঠ স্তব্ধ করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী’র পক্ষ থেকে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, ওলামায়ে কেরাম মুসলিম উম্মাহ’র রূহানি অভিভাবক। বাংলাদেশের সংবিধানে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে সরকার কর্তৃক আবার আলেম-ওলামার প্রদত্ত জুমার খুৎবা ও বক্তব্যের ওপর নজরদারি অগ্রহণযোগ্য ও আপত্তিকর। সরকারকে এ ধরনের বেআইনি হস্তক্ষেপ থেকে সরে আসতে হবে বলেও উল্লেখ করেন ডা. শফিকুর রহমান। তিনি আরো বলেন, এ দেশের ওলামায়ে-কেরাম ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ এ ধরনের হস্তক্ষেপ কখনো মেনে নিবে না।

শফিকুর রহমান বলেন, ‘জাতিকে সঠিক পথে পরিচালনা করা, দেশ ও সমাজে সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি, জনগণকে নৈতিক শিক্ষা প্রদান, পারস্পরিক ভালোবাসা-শ্রদ্ধা, দেশপ্রেম এবং জাতির প্রতি দায়িত্ববোধ সৃষ্টি করার জন্য ওলামায়ে কেরাম জুমার খুৎবা ও ওয়াজ নাছিহার মাধ্যমে জাতিকে গড়ে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

জাতি যেখানে গভীর সঙ্কটে নিপতিত সেখানে ওলামায়ে কেরামকে তাদের ভূমিকা আরও জোরদার করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে উৎসাহিত করা উচিত। ওলামায়ে কেরাম ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা যাতে নিসংকোচে তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারেন- সেই পরিবেশ নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email