ঘুম থেকে উঠে দেখলেন পা নেই !

0
388

শিব্বির আহমদ ওসমানী: আপনি গভীর ঘুমে আছেন। কিছু বলতে পারছেন না। হঠাৎ ঘুম ভাঙ্গনের পর দেখলেন পা নেই। পা খুঁজে পাচ্ছেন না। তখন কি অনুভূতি হবে। একটু চিন্তা করুন। আমরা ড্রাইভিংয়ে বা চলাফেরায় সচেতন হই না। একটি দূর্ঘটনা জীবনকে সম্পূর্ণ পাল্টে দিতে পারে। সকল স্বপ্নকে উলটপালট করে দিতে পারে।
রাসেল নামের এক যুবকের বেলায় তাই ঘটেছে। সে ঘুম থেকে উঠে দেখে তার পা নেই। হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে বারবার পায়ের কাটা স্থানে হাত দিয়ে পা খুঁজছেন রাসেল সরকার। হাতটা পায়ের কাছে নিতেই হাউমাউ করে কেঁদে ওঠেন তিনি। ডাক্তার রাসেলকে বিশ্রাম নিতে বলছেন। কথা বলতে নিষেধ করেছেন। কিন্তু যতটুক সময় জেগে থাকেন, ততক্ষণই কাঁদতে থাকেন। তাকে সান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা খুঁজে পাচ্ছেন না ডাক্তার বা স্বজনরা।
ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার বিকালে। কেরানীগঞ্জের এপিআর এনার্জি বিদ্যুৎ প্রজেক্টের একটি নির্মাণ সাইট থেকে ফেরার পথে ধোলাইপাড়ে রাসেল সরকারের প্রাইভেটকারকে পিছন থেকে ধাক্কা দেয় গ্রিন লাইন পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব-১৪-২৭৮৬)। তখন রাসেল গাড়ি থামিয়ে বাসের সামনে গিয়ে বাসচালককে নামতে বলেন। কিন্তু বাস চালক উল্টো বাস চালাতে শুরু করলে চাকায় চাপা পড়ে পা বিচ্ছিন্ন হয় রাসেলের। বাসটি তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় দুই মোটরসাইকেল আরোহী পিছু নিয়ে হাইকোর্টের পাশে কদম ফোয়ারার সামনে থেকে পুলিশের সহযোগিতায় বাস ও চালককে আটক করে। গত রবিবার অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিত্সকরা রাসেলের পা জোড়া লাগাতে অস্ত্রোপচার করেন। কিন্তু চার ঘণ্টার চেষ্টাতেও তারা পা জোড়া লাগাতে পারেননি।
রাসেল কি জানতো তার এ পরিণতির কথা। ভাগ্যের খেলায় সে আজ গাড়ির সিট থেকে হাসপাতালের বিচানায়। আসুন আমরা সচেতন হই। বিশেষকরে ড্রাইভিংয়ের ক্ষেত্রে। আপনার সামান্য ভূলের কারণে আপনার বা অন্য কারো জীবন হুমকির মূখে পরতে পারে।

লেখক: শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক ও মানবাধিকারকর্মী।

Print Friendly, PDF & Email