চারিত্রিক মাধুর্যতা দিয়ে ছাত্রসমাজের কাছে ইসলামের দাওয়াত পৌছে দিতে হবে: শিবির সভাপতি

0
195

Abdul Zobbar 01
ঢাকা: বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি আবদুল জব্বার বলেন, কোন দল মত নয় বরং বাতিল শক্তি ইসলামের অগ্রযাত্রায় আতঙ্কিত হয়ে ষড়যন্ত্র করছে। তাই ইসলামী আন্দোলনের নেতাকর্মীদের উপর সর্বগ্রাসী নিপিড়ণ করে যাচ্ছে। কিন্তু তাদের এই ষড়যন্ত্রকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করে চারিত্রিক মাধুর্যতা দিয়ে ছাত্রসমাজের কাছে ইসলামের পৌছে দিতে হবে। শুক্রবার সকাল ১০টায় রাজধানীর এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবিরের ঢাকা উত্তর ও মোমেনশাহী অঞ্চলের আঞ্চলীক দায়িত্বশীল সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক ইয়াছিন আরাফাতের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মু. সেলিম উদ্দিন। আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় তথ্য সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, ঢাকা মহানগরী উত্তরের সভাপতি আনিসুর রহমান, পশ্চিমের সভাপতি সুলতান মাহমুদ।
শিবির সভাপতি বলেন, ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশে রাষ্ট্রীয় ভাবে ইসলাম বিরোধীতা চলছে। ইসলাম বিরোধী নাস্তিক্যবাদী শক্তিকে সরাসরি পৃষ্টপোষকতা দেয়া হচ্ছে। ইসলামকে ধ্বংস করতে আলেম উলামা, ইসলাম প্রিয় ছাত্রজনতা, শিশু, কিশোর, বৃদ্ধ, মহিলার উপর চালানো হয়েছে গণহত্যা। আদালতকে ব্যবহার হত্যা করা হয়েছে বাংলার ইসলাম প্রিয় জনতার প্রিয় মুখ শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লা ও শহীদ কামারুজ্জামানকে। যুব সমাজকে কৌশলে ইসলামের বিরুদ্ধে ব্যবহারের ষড়যন্ত্র করছে। ছাত্র ও যুবসমাজকে ইসলাম বিমুখ করতে রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতায় মাদক আর ভিনদেশি নোংড়া সংস্কৃতির সয়লাব করে দেয়া হয়েছে। যার ফলে যুবসমাজের একটি বিশাল অংশ আজ চারিত্রহীনতার বেড়াজালে আবদ্ধ। পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে প্রকাশ্য দিবালোকে মেয়েদের বস্ত্রহরণ করে যে নারকিয় চরিত্রের বহি:প্রকাশ ঘটানো হয়েছে তাতে জাতির পিলে চমকে উঠেছে। এই অপকর্ম বিশ্ব দরবারে জাতিকে আরেকবার কলঙ্কিত করেছে। এটা কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয় বরং দেশ ও ইসলাম বিরোধী অপশক্তি জাতি বিনাশী যে ষড়যন্ত্র করছে তারই বহি:প্রকাশ।
তিনি বলেন, এসব অপকর্ম ও ইসলাম বিরোধী ষড়যন্ত্রের শুধু বিরোধীতা করলে হবেনা। বরং যার যার অবস্থান থেকে বিরোধীতার সাথে সাথে বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। যুবসমাজকে বাঁচাতে প্রতিটি ছাত্রের কাছে ইসলামের সুমহান আদর্শ তোলে ধরতে হবে। তবে এক্ষেত্রে চারিত্রিক মাধুর্যতা দিয়ে ইসলামের পথে আহবান করাকে দাওয়াতের ক্ষেত্রে প্রধান নিয়ামক বানাতে হবে। শত অপপ্রচার বাধা বিপত্তি সত্তেও ছাত্রশিবিরের ছায়াতলে এসে লাখো তরুণ তাদের নিজেদের সৎ, দক্ষ ও দেশপ্রেমী হিসাবে তৈরি করার স্বপ্ন দেখছে চারিত্রিক দাওয়াতের কারণেই।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মু. সেলিম উদ্দিন বলেন, ইসলামী আন্দোলনকে নস্যাৎ ও আগামী প্রজন্মকে ধ্বংসের যেই ভয়াল ষড়যন্ত্র চলছে তা শুধু যুবসমাজই রুখে দিতে পারে। তাই ইসলাম ও যুবসমাজকে রক্ষার গুরু দায়িত্ব ছাত্রশিবিরকেই নিতে হবে। প্রতিটি নেতাকর্মীকে এক একজন রাহবারের ভূমিকা পালন করতে হবে। মনে রাখতে হবে ছাত্রশিবিরের কাছে জাতির প্রত্যাশা অনেক বেশি।

Print Friendly, PDF & Email