ছাতকে স্কুল ছাত্র হত্যার অভিযোগে আটক ৩

0
117

নিজস্ব প্রতিবেদক: ছাতকে স্কুল ছাত্র নেছার আহমদ (১৬) কে হত্যা করা হয়েছে। সে নোয়ারাই ইউনিয়নের বাতিরকান্দি গ্রামের এছলিম উদ্দিনের পুত্র ও এসপিপিএম উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সহপাঠিরা রোববার ভোরে তাকে হত্যা করেছে বলে তার পিতা এছলিম উদ্দিন জানিয়েছেন। এ ঘটনায় স্থানীয়রা একই গ্রামের কলমধর আলীর পুত্র পাপ্পু (১৯), পাটিবাগ গ্রামের মৃত আলাবুরের পুত্র রুমেন(২০) ও আবুল খয়েরের পুত্র তারেক(২০) কে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

স্থানীয়রা জানান, ফজরের নামাজের পর মুমুর্ষ অবস্থায় নেছার আহমদকে নিজ বসত ঘরের আঙ্গিনায় রেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতা ৩জনকে আটক করেছে। আহত নেছার আহমদকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়। তার পিতা জানান, শনিবার রাত প্রায় ১০টার দিকে কাউকে কিছু না বলে ঘর থেকে বেরিয়ে যায় নেছার আহমদ। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাতভর নির্যাতনের পর সকালে প্রায় মৃত অবস’ায় বাড়ির আঙ্গিনায় ফেলে যায় তার সহপাঠিরা। থানা পুলিশ নেছার আহমদের লাশ উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেছে। স্থানীয় একাধিক লোক জানান, মফিজনগর-টেংগারগাঁও-বাংলাবাজার সড়কে গাড়ি ডাকাতি করতে গিয়ে রাতে গাড়ি চাপায় আহত হয়েছে নেছার আহমদ। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে ভোরে তার মৃত্যু হয়।

ছাতক থানার ওসি (তদন্ত) আশরাফুল ইসলাম জানান, হত্যাকান্ডটি রহস্যজনক। ময়না তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। নেছার আহমদের মৃত্যু নিয়ে এলাকায় চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। তাকে হত্যা করা হয়েছে না গাড়ির ধাক্কায় তার মৃত্যু হয়েছে-এ নিয়ে এলাকা জুড়ে চলছে আলোচনা। থানা পুলিশের কাছেও স্থানীয়রা দ্বি-মূখী বক্তব্য দিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email