জগন্নাথপুরের হাপাতি হাওরের পানি সংকট দুরীকরনে ব্যক্তি উদ্যোগে ৭ বিল খনন

0
154

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: জগন্নাথপুর পৌর এলাকার একাংশ ও উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের একাংশ নিয়ে অবস্থিত হাপাতি হাওর। হাওরে মোট ৮ টি বিল রয়েছে। এসব বিলের পানি দিয়ে হাওরের প্রায় ২৫০ একর জমি চাষাবাদ করা হয়। কালের বিবর্তনে এসব বিল ভরাট হয়ে যাওয়ায় বিগত প্রায় ১০ বছর ধরে হাওরের অধিকাংশ জমি অনাবাদি থাকে। পানির অভাবে জমি আবাদ করতে পারেননি কৃষকরা। যদিও ডিপ মেশিনের পানি দিয়ে হাওরের কিছু জমি আবাদ করা হতো। অবশেষে হাওরের পানি সংকট দুরীকরনে বিল খননের উদ্যোগ নেন জগন্নাথপুর পৌর এলাকার ইসহাকপুর গ্রামের বাসিন্দা যুক্তরাজ্যের মিডল্যান্ড আ.লীগের সহ-সভাপতি আকমল খান। স্থানীয় এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে আকমল খান প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে তাঁর ব্যক্তি উদ্যোগে গত চৈত্র মাসে হাপাতি হাওরের ৮ টি বিলের মধ্যে ৭ টি বিল খনন করেন। বিলগুলো খনন করায় আগামীতে হাওরের জমি আবাদে আর পানি সংকট থাকবে না। এতে স্থানীয় কৃষকদের মধ্যে আবারো জমি আবাদের আমেজ ফিরে এসেছে।

এ ব্যাপারে যুক্তরাজ্য প্রবাসী আকমল খান জানান, আমরা প্রবাসে থাকলেও নারীর টানে বারবার দেশে ফিরে আসি এবং এলাকার সমস্যা সমাধানে আপ্রাণ চেষ্টা করে থাকি। পানি সংকটের কারণে বিগত ১০ কছর ধরে হাওরের জমি আবাদ হচ্ছে না দেখে আমার ব্যক্তি উদ্যোগে ৮ টি বিলের মধ্যে ৭ টি বিল খনন করি এবং আগামী বছর বাকি ১ টি বিলও খনন করবো। এখন থেকে হাওরে জমি আবাদ করতে আর পানির অভাব থাকবে না। বিলগুলো খনন করায় পানি সংকট দুর হওয়ার সাথে দেশীয় মাছের অভাবও অনেকটা পূরণ হবে।

Print Friendly, PDF & Email