জগন্নাথপুরে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ: আহত অর্ধশতাধিক

0
168

জগন্নাথপুর: উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের এরালিয়া বাজার ও মোহাম্মদপুর গ্রামে শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে দু-দল গ্রামবাসীর দফায় দফায় সংঘর্ষে মহিলাসহ উভয় পক্ষের অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। এঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানান, সংঘর্ষ চলাকালে কমপক্ষে ১০ রাউন্ড গুলি বর্ষনের ঘটনায় পুরো এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এরালিয়া বাজারে সংঘর্ষ চলাকালে ২টি দোকান ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয়রা জানান।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানাযায়, বুধবার সন্ধ্যায় এরালিয়া বাজারে মোহাম্মদপুর গ্রামের মানিক মিয়া উরফে ভেঙ্গাই মিয়া গ্রুপ ও আশিক মিয়া গ্রুপের মধ্যে শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে দু-পক্ষের লোকজনদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় পুরো বাজারে আতংক ছড়িয়ে পড়লে ব্যবসায়ী দোকানপাট বন্ধ করে দিক বেদিক ছুটাছুটি শুরু করেন। উত্তেজিত দু-গ্রুপের লোকজন দোকানপাট ভাংচুর করেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানাগেছে। উভয় পক্ষের লোকজন বাজার থেকে ঘোষনা দিয়ে গ্রামে পৌছে পুনরায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দীর্ঘ ২ঘন্টাব্যাপী ভয়াবহ সংঘর্ষে ইট-পাটকেল, সুলফি, রামদা ও টেডার আঘাতে কমপক্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সংঘর্ষ চলাকালে ১০রাউন্ড গুলি বর্ষনের ঘটনা ঘটলে পুরো গ্রামে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। আশ-পাশ গ্রামবাসীদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। সংঘর্ষে আহত আব্দুল মানিক ভেঙ্গাই (৫০), আহমদ হোসাইন লিজু (২০), আলমাছ আলী (২৪), সৈয়দ মনসুর আলী (২৮), জমাত আলী (৩৫), আফরোজ আলী (৩০), এমানুল হক (১৯), সেলু মিয়া (২০), লিটন মিয়া (২৪), মমিনুল মিয়া (২২), রুমেন মিয়া (২৭), মুহিবুর রহমান (১৭), আজমল হোসেন (২০), আহমদ মিয়া (৩০), ধন মিয়া (৪০), মুতিউর রহমান (৩০), আবু তাহের (২০), মুতাহির মিয়া (২২), মাহবুব মিয়া (২১), সায়মন আহমদ (১৮), শাহজাহান (২০), সুজাত (২৫), সাজাদ মিয়া (২০), সিরাজ মিয়া (৩০), কামাল মিয়া (৪০), আখলু মিয়া (২৫), রাহেনা বেগম (৫০) জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৫জনকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সংঘর্ষের ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

Print Friendly, PDF & Email