জগন্নাথপুরে রোলার চাপায় নিহত শ্রমিক, মামলা ও ময়না তদন্ত ছাড়াই রফা!

0
142

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: জগন্নাথপুরে রোলারের চাপায় পিষ্ট হয়ে নিহত হওয়া শ্রমিকের ঘটনাটি কোন প্রকার মামলা ও ময়না তদন্ত ছাড়াই দফারফা হয়ে গেছে। এ নিয়ে এলাকায় নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। জানাগেছে, গত বুধবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কে মেরামত কাজ চলাকালীন সময়ে সড়কের বটেলতল নামক স্থানে চালকের অবহেলায় এ ঘটনা ঘটে। তখন রোলারের চালক রেজাউল ইসলামের পরিবর্তে তার হেলপার অলিউর রহমান মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে রোলার চালিয়ে সড়কে গালার কাজে নিয়োজিত শ্রমিক দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার গণিগঞ্জ গ্রামের মৃত আপ্তর আলীর ছেলে রইছ উদ্দিনকে (২০) রোলারের নিচে ফেলে পিষ্ট করে দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই হতভাগ্য শ্রমিক রইছ উদ্দিনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে জগন্নাথপুর থানার এসআই সাইফুল আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। লাশটিকে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণের কথা থাকলেও প্রেরণ করা হয়নি। অবশেষে রাত ১২ টার দিকে জগন্নাথপুর থানা ভবনে হতভাগ্য নিহত শ্রমিক রইছ উদ্দিনের দরিদ্র পরিবারের লোকজনকে নিয়ে সড়কে কাজ পাওয়া ঠিকাদার নুরুল আমিন, জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) রফিকুল ইসলাম ও জগন্নাথপুর থানার এসআই সাইফুল আলমসহ উভয় পক্ষের লোকজন দীর্ঘক্ষন বৈঠক করেন। এক পর্যায়ে সমঝোতায় কোন প্রকার মামলা ও ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশটি নিহত পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তবে কত টাকায় এ নির্মম হত্যাকা-টি ধামাচাপা দেয়া হয়েছে, তা জানা সম্ভব হয়নি।
এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর থানার ওসি হারুনুর রশীদ চৌধুরী বলেন, বিষয়টি আপোষে নিস্পত্তি হওয়ায় মামলা হয়নি এবং উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে ময়না তদন্ত ছাড়া লাশটি নিহত পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email