জগন্নাথপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় যারা

0
200

বিশেষ প্রতিনিধি: দীর্ঘ বেশী সময় পর নানা জল্পনা-কল্পনার পর জগন্নাথপুর উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের জীবন বৃত্তান্ত আহবান করেছে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ। এ আহবানে এরই মধ্যে গত ২৫থেকে ৩০শে জুন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে ১৫৫ জনের জীবন বৃত্তান্ত জমা হয়েছে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দীপঙ্কর কান্তি দে বলেন, ‘ জেলার সাতটি ইউনিটের ছাত্রলীগকে আরো সক্রিয় ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে নতুন নেতৃত্বে আগ্রহী নেতাকর্মীদের কাছ থেকে জীববৃত্তান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সকল জীবনবৃত্তান্ত যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। চলতি জুলাই মাসে কিছু ইউনিটে কমিটি গঠন করা হতে পারে।’

জীবন বৃত্তান্ত জমা দেওয়ার পর থেকেই আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দরা তাদের নিজের বলয়ের ছাত্রলীগ নেতাদের পদ পাইয়ে দিতে চেষ্টা করছেন নিজেদের সর্বোচ্চ দিয়ে। তৃণমুল নেতাকর্মীদের মতে, উপজেলায় বেশ কয়েকটি বলয় কাজ করছে। নেতাকর্মীরা নিজ নিজ অবস্থান ও বিভিন্ন বলয়ের মাধ্যমে নিজের প্রত্যাশিত পদটি আনতে দৌড় ঝাপ শুরু করেছেন।

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান রিপন বলেন দীর্ঘদিন ধরে সাংগঠনিক কার্যকর্ম না থাকায় শিঘ্রই নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি করা হবে এবং সংগঠন কে আরো শক্তিশালী করা হবে ।

জগন্নাথপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন :কল্যান কান্তি সানি রায়,আব্দুল মুকিত,তৈয়বুর রহমান সিতু,তোহা চৌধুরী। পদটি বাগিয়ে নেওয়ার জোর চেষ্ঠা ও তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন। সিনিয়র নেতাদের কাছে লবিং এবং নিজেদের অবস্থান থেকে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জগন্নাথপুরের তানভীর আলম পিয়াস জানান জীবন বৃত্তান্ত যাচাই বাচাই চলছে মাঠের ত্যাগী,মেধাবী ছাত্র, পরিশ্রমী ও যোগ্যরাই কমিটিতে স্থান পাবে ।

সাধারন সম্পাদক পদ প্রত্যাশী হিসেবে বেশ কয়েকজন নেতা আলোচনায় রয়েছেন তাদের মধ্যে: শাহ্ রুহেল ,হাবিব-জুয়েল ,মোজাহিদ মিয়া,হাসান আদিল এর নাম শোনা যাচ্ছে।
আসন্ন কমিটি নিয়ে ছাত্রনেতা দের মধ্যে চলছে উৎসব উদ্দীপণা ,চলছে লবিং তদবির নিজ,নিজ বলয়ের মহড়া ।

Print Friendly, PDF & Email