জঙ্গি তৎপরতার নেপথ্যে ইহুদি-নাসারারা: হানিফ

0
158
Hanif

 

ঢাকা: আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, দেশবাসী এখন দুটি বিষয়ে উদ্বিগ্ন। প্রথমত আমাদের প্রিয় ধর্ম ইসলাম আজ আক্রান্ত এবং দ্বিতীয়টি হচ্ছে আমাদের মাতৃভূমি। যার জন্যে ৩০ লাখ মানুষ তাদের জীবন দিয়েছেন, দুই লাখ নারীর সম্ভ্রমের মাধ্যমে পাওয়া প্রিয় স্বদেশ আজ সন্ত্রাসী জঙ্গি হামলার শিকার। আর এসব অপকর্মে তৎপর দেশের ভেতরে জামায়াত-বিএনপি এবং নেপথ্যে ইন্ধন দিচ্ছে ইহুদি-নাসারারা। বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোর জিলা স্কুল অডিটরিয়ামে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে ইসলামের আহ্বান শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন। ইসলামিক ফাউন্ডেশন যশোর এই কর্মশালার আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর।

কর্মশালায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক নাসির উদ্দিন মোল্যা, মাওলানা রুহুল আমিন, হারুন অর রশিদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে যশোরের বিভিন্ন এলাকার জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক, মসজিদের ইমাম, শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন। মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, প্রিয় নবী হজরত মুহম্মদ (সা.) ইসলামকে শান্তির ধর্ম হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে গোটা বিশ্বের মানুষের হৃদয় জয় করতে সক্ষম হন। ইসলাম খুন-খারাবি, নৈরাজ্য, সন্ত্রাস সমর্থন করে না। কিন্তু সেই ধর্মের নামে আইএস এখন বিভিন্ন দেশে হত্যা-সন্ত্রাস করে ইসলামের পবিত্রতা নষ্টের চক্রান্ত করে আসছে।

হানিফ বলেন, গুলশানের আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার পরপরই আইএস দায় স্বীকার করেছে বলে খবর দেয় সাইট ইন্টেলিজেন্স। এই সাইট ইন্টেলিজেন্স পরিচালনা করেন রিটা কাটজ, যিনি ইহুদি বাবা-মায়ের সন্তান। তার বাবা ইসরাইলের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির কারণে ইরাকে সাজাপ্রাপ্ত হন। এই রিটা কাটজ পরিণত বয়সে মোসাদে জয়েন করেন এবং পরে স্বামীসহ আমেরিকা গিয়ে সিআইএ-এর এজেন্ট হন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করতে প্রথমে মুক্তচিন্তার মানুষদের ওপর হামলা শুরু হয়। এরপর বিভিন্ন ধর্মেও সেবায়েত, পুরোহিত, যাজকদের ওপর হামলা করা হয়। সর্বশেষ গুলশান এবং শোলাকিয়ায় হামলা করেছে জঙ্গি-সন্ত্রাসীরা। তিনি আইএস-এর অপতৎপরতার কথা উল্লেখ করে বলেন, ইসলামিক স্টেট কায়েমের নামে এই জঙ্গি সংগঠনটি ইরাকের তিন হাজার বছরের সভ্যতা ধ্বংস করেছে। সিরিয়ায় মুসলমানদের ওপর অকথ্য নির্যাতন চালাচ্ছে। বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরী মোসাদের এক ব্যক্তির সঙ্গে সাক্ষাতের পরপরই দেশে গুপ্তহত্যা শুরু বলে দাবি করেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email