জাপা-খেলাফত মজলিস নির্বাচনী সমঝোতা

0
205

নিজস্ব প্রতিবেদকজাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, বর্তমান প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা সহজ, সরল মানুষ। তার নাম আমরাই প্রস্তাব করেছিলাম। সুন্দর পরিবেশ হলে তিনিও সুষ্ঠু নির্বাচন করতে পারবেন। 

শনিবার রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সাথে জাতীয় পার্টির নির্বাচনী সমঝোতা উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

পবিত্র কুরআন সুন্নাহ ও শরীয়ত বিরোধী কোনো আইন প্রণয়ন না করাসহ ছয়টি শর্তে এ নির্বাচনী সমঝোতা হয়।
নির্বাচন প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, বিএনপি নির্বাচনে এলে জাতীয় পার্টি এক ধরনের কৌশল নেবে। আর না এলে ৩০০ আসনেই মনোনয়ন দেয়ার প্রস্তুতি আছে। তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টির একটি জোট আছে, তবে এখনও বলার সময় আসেনি কাদের সাথে নির্বাচনী জোট হবে।

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সাথে সমঝোতা প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, আজ বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে মুসলামানরা নির্যাতিত, নিপীড়িত। এ অবস্থা থেকে আমাদেরই মুক্তির উপায় বের করতে হবে। আমাদের দেশ থেকেই আগে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে হবে। আমরা ঐক্যবদ্ধ হচ্ছি, আমাদের সংঘবদ্ধ প্রচেষ্টায় ইসলাম ঘুরে দাঁড়াবে। আমাদের উদ্দেশ্য ইসলামকে প্রতিষ্ঠিত করা।
তিনি আরো বলেন, আজকের সমঝোতার দিন একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন এবং আমার রাজনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্জন। এ সমঝোতার মাধ্যমে আমার শক্তি অর্জিত হলো। এখন থেকে আমাদের সাথে নির্বাচনী সমঝোতায় যুক্ত হলো বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস। এ সংগঠনের আগ্রহী প্রার্থীদের তালিকা গ্রহণ করে একটি সমন্বিত প্রার্থী তালিকা প্রণয়ন করবো। এ সমঝোতার নীতিমালা হলো আমরা একত্রে নির্বাচন করবো এবং একত্রে সরকার গঠন করবো। তবে শরীকদের পৃথক পৃথক নির্বাচনী ইশতেহার থাকতে পারে, আবার সমঝোতায় একক ইশতেহারও থাকতে পারে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন খেলাফত মজলিসের আমির প্রিন্সিপাল আল্লামা হাবীবুর রহমান, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি, খেলাফত মজলিস মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email