জামায়াতের চাপ ও মিন্টুর টাকায় তাবিথের পক্ষে খালেদা: হাছান মাহমুদ

0
139

Dr. hasan mahmud 03
ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল আউয়াল মিন্টুর অর্থ ও জামায়াতের চাপে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া তাবিথ আওয়ালকে সমর্থন দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। সোমবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের শিশু কল্যাণ ভবনে স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ দাবি করেন।
হাছান বলেন, বিএনপি নেতারা ও জোটের শরীকরা মাহী বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে সমর্থন করতে চেয়েছিল। তাবিথ আওয়ালের শ্বশুড় জামায়াতের কেন্দ্রীয় সুরা সদস্য। তাই জামায়াতের চাপে বেগম খালেদা জিয়া তাবিথ আউয়ালকে সমর্থন দিয়েছেন।
তিনি বলেন, আবদুল আউয়াল মিন্টুর টাকায় বেগম খালেদা জিয়া গত তিন মাস গাড়িতে পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ হত্যা করেছেন। তিনি (খালেদা) যদি শুরুতে মির্জা আব্বাসের পক্ষে প্রচারণায় নামতেন আমরা বুঝতে পারতাম মহানগর আহ্বায়কের পক্ষে নেমেছেন।
সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া যে বাস পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করেছেন সেই প্রতীকেই এখন ভোট চাইছেন। জামায়াতের চাপে ও মিন্টুর টাকার কাছে নতি স্বীকার করে তিনি তাবিথের মতো নাবালকের পক্ষে ভোট চাইছেন। নির্বাচনের পর তিনি (খালেদা) আবারও এ ধরনের জ্বালাও-পোড়াও করতে পারেন বলেও মনে করেন তিনি।
তিনি বলেন, সব নির্বাচনের আগে সন্ত্রাসীদের ধরার জন্য সাড়াশি অভিযান চালানো হয়। আমরা দেখতে পাচ্ছি ঢাকা ও চট্টগ্রামে গত তিন মাসে যারা পেট্রোলবোমা মেরেছে, মানুষ হত্যা করেছে, এমন কি ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিরাও মেয়র প্রার্থী ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছে। নির্বাচন কমিশন এখনো এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কোনো নির্দেশনা দেয়নি। আমি নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ করবো সন্ত্রাসীদের ধরার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের নির্দেশ দিন।
আওয়ামী লীগের এ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বলেন, খালেদা জিয়া যদি নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে পারেন। তাহলে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো সরকারি সুযোগ-সুবিধা বাদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীদের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার সুযোগ দিতে হবে। এতে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হবে। অন্যথায় এটা সরকারি দলের জন্য বৈষম্যমূলক আচরণ করা হবে।
সংগঠনের সভাপতি জিনাত আলী জিন্নাহর সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকসহ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

Print Friendly, PDF & Email