জীবননগরে সেফটিক ট্যাংকে পিতা-পুত্রসহ ৪ শ্রমিকের মৃত্যু

0
110

 

ঢাকা: চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার বৈদ্যনাথপুরে নির্মাণাধীন একটি বাড়ির পায়খার সেফটিক ট্যাংকে নেমে ৪ নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার বিকাল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সেফটিক ট্যাংকির ভেতরে সার্টারিঙের কাঠ খুলার জন্য শ্রমিকরা ট্যাংকির ভিতরে নামে। এ সময় পিতা-পুত্রসহ ৪ শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বৈদ্যনাথপুর গ্রামের আকবর আলীর ছেলে প্রকৌশলী রুস্তম আলীর নির্মাণাধীন বাড়ির পায়খানর সেফটিক ট্যাংকের ছাদের কাঠ খোলার জন্য দুই জন শ্রমিক নিচে নামে। নিচে নেমে তারা অসুস্থ্যতার কথা বললে উপরে অবস্থানকৃত অপর দুই নির্মাণ শ্রমিক নিচে নামে। এসময় তারাও অসুস্থ্য হয়ে সেফটিক ট্যাংকের ভিতরে আটকা পড়ে। পরে সেফটিক ট্যাংক ভেঙ্গে তাদেরকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। নিহতরা হচ্ছেন বৈদ্যনাথপুর গ্রামের নওশের আলী মন্ডলের ছেলে জালাল উদ্দিন (৩০), ওই গ্রামের ঘর জামাতা আলমডাঙ্গা উপজেলা সদরের মৃত মুনসুর আলীর ছেলে আবুল হাশেম (৪৮) ও তার ছেলে সুজন (৩০) এবং গঙ্গাদাসপুরের জামাত আলীর ছেলে জুয়েল (৩০)। জীবনগর ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার সোহরাব হোসেন বলেন, অক্রিজেনের অভাব এবং বিষক্রিয়ায় তারা মারা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email