জুডিশিয়াল কিলিং বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপ কামনা

0
168

10509580_748030961900349_1651124218512138948_n
ওয়াশিংটন: বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন ও জুডিশিয়াল কিলিংয়ের প্রতিবাদে হোয়াইটহাউসের সামনে বিক্ষোভ করেছে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এ সময় তারা মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
বৃহস্পতিবার হিউম্যান রাইটস ডেভেলপমেন্ট বাংলাদেশের ব্যানারে কয়েকশ’ প্রবাসী বাংলাদেশি এই বিক্ষোভ করেন। পরে এই দাবিতে ওয়াশিংটন বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনেও বিক্ষোভ হয়েছে। সে সময়ে দূতাবাসে স্মারকলিপি জমা দিতে গেলে কর্মকর্তারা তা নিতে অস্বীকার করেন।
বিক্ষোভ থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিরা বর্তমান সরকারের সমলোচনা করে বলেন, ‘এই সরকার অবৈধ। তাদের ক্ষমতায় থাকার কোনো অধিকার নেই। ক্ষমতা টিকে থাকার জন্য শেখ হাসিনার সরকার বাংলাদেশে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করছে।’ তারা বলেন, ‘দেশ থেকে বিরোধী দল নিশ্চিহ্ন করতে তথাকথিত টাইব্যুনাল দিয়ে জুডিশিয়াল কিলিং শুরু করেছে।’ প্রবাসী নেতারা এই হত্যাকাণ্ড বন্ধে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
বিক্ষোভ ঘিরে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সরকারি বাসভবন হোয়াইটহাউসের উত্তর গেটে জড়ো হন। ওয়াশিংটন ছাড়াও নিউ ইয়র্ক, ভার্জিনিয়া, ম্যারিল্যান্ড, নিউ জার্সি থেকে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী এতে অংশ নেন। বিক্ষোভে সভাপতিত্ব করেন হিউম্যান রাইটস ডেভেলপমেন্ট বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মাহতাব উদ্দিন। পরিচালনা করেন ইঞ্জিনিয়ার নুসরাত লিমা।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, মুসলিম আমেরিকান এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মাহাদি ব্রে, ইজিপশিয়ান আমেরিকান এসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেসির ডিরেক্টর একরাম এঞ্জাজ, মুসলিম আমেরিকান সোসাইটি নিউ ইয়র্কের পরিচালক মুহাম্মদ আব্বাস আলী, হিউম্যান রাইটস ডেভেলপমেন্ট বাংলাদেশের কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক নুরুল ইসলাম, অ্যাটর্নি এম আজিজ, মাহবুবুর রহমান, মনির উদ্দিন, আব্দুল্লাহ আল আরিফ, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট শাহানা মাসুম, ব্যারিস্টার নকিবুর রহমান, মীর মাসুম আলী প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email