ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ৩

0
143

Bhumikompo
স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টা ১১ মিনিটে প্রথম দফায় শক্তিশালী এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের পেশাগত সহকারী সহিদুল হাসান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উৎপত্তিস্থলে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৭ দশমিক ৫। ভূমিকম্পে বিকেল সোয়া তিনটা পর্যন্ত সারাদেশে ৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।
সিলেট, রংপুর, পঞ্চগড়সহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ভূমিকম্পের খবর পাওয়া গেছে। ভূমিকম্পের সময় অনেকেই বাসাবাড়ি থেকে বের হয়ে বাইরে অবস্থান নেন।
আবহাওয়া অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল নেপালের বারপাক অঞ্চল। ঢাকার আগারগাঁও থেকে উৎপত্তিস্থলের দূরত্ব উত্তর-পশ্চিমে ৭৪৫ কিলোমিটার। উৎপত্তিস্থলে রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৫।
আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ মো. রুহুল কুদ্দুস জানান, নেপালের বারপাক অঞ্চল থেকে আজ শনিবার তিন দফা ভূমিকম্পের সৃষ্টি হয়। দুপুর ১২টা ১১মিনিটে প্রথম দফা ভূমিকম্পের পর ১২টা ৪৫ মিনিটে দ্বিতীয় দফা এবং বেলা একটা ৭মিনিটে তৃতীয় দফা ভূকম্পনের সৃষ্টি হয়। দ্বিতীয় দফায় এর মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৪ ও তৃতীয় দফায় ৫।
তিনি জানান, প্রথম ও দ্বিতীয় দফার ভূকম্পন বাংলাদেশের প্রায় সব এলাকায় অনুভূত হলেও শেষ দফার কম্পনটি অনুভূত হয় দেশের উত্তরাঞ্চলের কিছু জায়গায়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূপর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক অধ্যাপক ড. হুমায়ুন আক্তার সমকালকে বলেন, বাংলাদেশে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৫। কম্পনটি এক মিনিটের বেশি স্থায়ী হয় বলে জানান তিনি।
যুক্তরাষ্ট্রের জিওলজিক্যাল সার্ভে (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, নেপালের রাজধানী কাঠমাণ্ডু ও পোখারা শহরের মধ্যবর্তী স্থানে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৭ দশমিক ৯। যদিও প্রতিষ্ঠানটি প্রথমে জানিয়েছিল উৎপত্তিস্থলে ভূকম্পনের মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৫।
ঢাকা ছাড়াও পঞ্চগড়, নারায়ণগঞ্জ, মাগুরা, জয়পুরহাট, ঝালকাঠির রাজাপুর, আড়াইহাজার, পাঠগ্রাম, কুড়িগ্রাম ও ইশ্বরদী থেকে ভূমিকম্পের খবর পাঠিয়েছেন আমাদের প্রতিনিধিরা।

Print Friendly, PDF & Email