তিন লাখ টাকার চাঁদার জন্য খুন করা হয় জালালকে

0
180

Khun 03
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের শৈলকুপার রতনাট মাঠ থেকে বুধবার উদ্ধার হওয়া যুবকের পরিচয় মিলেছে। নিহত ব্যক্তি শৈলকুপা উপজেলার বগুড়া গ্রামের সাবেক শিক্ষক মাওলানা আব্দুল মজিদের ছেলে জালাল উদ্দীন (৩৫)। তিনি পেশায় একজন বাসের কনডাক্টর। তিন লাখ টাকা চাঁদার জন্য জালালকে হত্যা করা হয় বলে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে।
শৈলকুপা থানার ওসি উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান জানান, জেলার শৈলকুপা উপজেলার সীমান্তবর্তী রতনাট গোয়ালবাড়ি মাঠের মধ্যে এক ব্যক্তির মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ বুধবার দুপরে লাশ উদ্ধার করে। তার মাথায় লাঠির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

তিনি আরো জানান, এলাকায় সামাজিক বিরোধের জের ধরে জালালের পিতা আব্দুল মজিদকে তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে সন্ত্রাসীরা। এই ঘটনার পর থেকে পরিবারটি দেড় মাস পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। গত মঙ্গলবার নিহত জালাল বাড়ি ফেরার সময় প্রতিপক্ষরা তাকে অপহরণ করে এবং পিটিয়ে হত্যার পর লাশ রতনাট গ্রামের নির্জন মাঠে ফেলে রাখে। পুলিশের একটি সুত্র জানায় সামাজিক বিরোধর জের ধরে বগুড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা ও স্থানীয় চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ও চাঁদ মিয়া গ্র“পের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। এই বিরোধর জের ধরে জালাল উদ্দীনকে কুন করা হয়েছে বলে নিহতর পিতা আব্দুর রশিদ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন নজরুল গ্র“পের লোকজন তাদের বাড়ি ছাড়া করেছে। এ জন্য মাঠের ফসল কাটতে পারছেন না। পুলিশের কাছে গেলে পুলিশও বিষয়টি অগ্রাহ্য করছে। উল্লেখ্য সম্প্রতি ঝিনাইদহে পরিচয় বিহীন লাশের সংখ্যা বাড়ছে। গত ১০ নভেম্বর শৈলকুপার কমলনগর গ্রাম থেকে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার হলেও পুলিশ তার পরিচয় জানতে পারেনি। এ ছাড়া সদর উপজেলার বংকিরা গ্রাম থেকে গত ১৬ নভেম্বর এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে। এখনো পর্যন্ত তার নাম পরিচয় মেলেনি।

Print Friendly, PDF & Email