দিরাইয়ে কালবৈশাখীর ঝরে ব্যাপক ক্ষতি, ঘরবাড়ি বিধ্বস্থ

0
117

derai
আবুল হুসেন, দিরাই প্রতিনিধি: দিরাইয়ে পৌনে এক ঘন্টাব্যাপী বয়ে যাওয়া কালবৈশাখীর ঝরে ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। বৃহস্পতি বার সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে সোয়া ১১টা পর্যন্ত বয়ে যাওয়া ঝরু ও শিলাবৃষ্টির আঘাতে উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের দোলেনা বেগম নামের এক গৃহবধু গাছের চাপায় পড়ে মৃত্যু হয়েছে। এসময় কালিকোটা হাওরে ধান কাটতে গিয়ে নিখোজ রয়েছেন শ্যামারচর গ্রামের জালাল মিয়া নামের এক কৃষক। হাওরের মাঠে চড়ানো অন্তত ২৫০টি গরু ঝড়ের কবলে পড়ে মারাগেছে। পৌরসভাসহ উপজেলার নয় ইউনিয়নে দুই সহ¯্রাধিক কাছা ঘরবাড়ি বিধ্বস্থ হয়েছে। পৌরসভার একাধিক পোল্ট্রী খামারের সহস্রাধিক মোরগ মারা গেছে। মাঠে থাকা কয়েক হাজার মন গোলাধান ঘুর্নিঝড়ে উড়িয়ে নিয়ে গেছে। উপজেলার অন্তত কয়েক হাজার গাছপালাসহ সবজি বাগান বিধ্বস্থ হয়ে পড়েছে। বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে বিদ্যুত ব্যবস্থার।
চরনারচর ইউপি চেয়ারম্যান রতিকান্ত দাস জানান, ঝড়ের কবলে পরে পাইরা বিলে শতাধিক গরু মরা ভেসে উঠেছে। পৌর মেয়র আজিজুর রহমান বুলবুল জানান, পৌরশহওে ৩শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্থ হয়েছে। সাকিতপুর গ্রামের ৫০টি গরু, বাঙ্গাল গাও ও সুজানগর গ্রামের বেতর নদীতে পওে ১০টি গরু মারা যায়। সরমঙ্গল ইউপি সদস্য অমলেন্দু দাস জানান, মাঠে চড়ানো অন্তত ৪০টি গরু কাবছমা বিলে ও হাওওে মৃত ভেসে উঠেছে। রফিনগর ই্উপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর চৌধুরী জানান, তার ইউনিয়নে ২শতাধিক ঘরবাড়িসহ কয়েক হাজার মন গোলাধান ঝড়ে উড়িয়ে নিয়ে গেছে। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির কথা উল্লেখ করে ইউএনও মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন জানান, এখনো ক্ষতির পরিমান নিরুপন করা যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email