দিরাইয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০১৫ উদযাপন অনুষ্ঠানে বক্তারা সুনামগঞ্জ দেশের মাদার ফিশারিজ

0
135

আবুল হোসাইন,সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:
সাগর নদী সকল জলে, মাছ চাষে সোনা ফলে এ শ্লোগান নিয়ে দিরাইয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, আলেচনা সভা, মৎস্য সপ্তাহের শুভ উদ্ভোধন ও পোনামাছ অবমুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা ড.খালেদ কনকের নেতৃত্বে মৎস্যজীবিদের নিয়ে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গন হতে শোভাযাত্রা শুরু করে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে উপজেলা গনমিলনায়তন হলে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। সহকারি কমিশনার (ভুমি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(দায়িত্ব প্রাপ্ত) বিশ্বজিত কুমার পালের সভাপতিত্বে ।স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা ড. খালেদ কনক। আলোচনা সভায় অংশ নেন, আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সোহেল আহমদ, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা অসীম সরকার, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বিশ্বজিত কৃঞ্ষ চক্রবর্তী, ওসি বায়েছ আলম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আতাউর রহমান ও সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা রেজাউল ইসলাম।এরপর উপজেলা পরিষদ পুকুরে পোনামাছ অবমুক্ত করা হয় । সভাপতির বক্তব্য কালে সুনামগঞ্জকে দেশের মাদার ফিশারিজ উল্লেখ করে বিশ্বজিত কুমার পাল বলেন, ভাটি অঞ্চল সুনামগঞ্জে প্রতিবছর লাখ লাখ টাকার পোনামাছ অবমুক্ত করা হচ্ছে, ইহা দেশের সম্পদ, এ পোনা মাছ আপনারা ধরবেন না, ভেড়া জাল, মশারি জাল ও কোনা জাল দিয়ে মাছ ধরা আইনের পরিপন্থী, এ জাল শুধু মাছ নয়, মাছের খাদ্য ও জীববৈচিত্র ধ্বংস করে দেয়, এর থেকে আপনারা বিরত থাকতে সকলকে উৎসাহিত করতে হবে। তিনি বলেন, মাছের উপর সুনামগঞ্জের অধিকাংশ মানুষের জীবিকা নির্ভর, সুনামগঞ্জে কোনো শিল্প কারখানা গড়ে না উঠলেও এখানকার অর্থনীতি যে চারটি প্রাকৃতিক সম্পদের উপর নির্ভর এর মধ্যে মাছ উল্লেখযোগ্য। টাংগুয়ার হাওরের মৎস্য সম্পদ ব্যবস্থাপনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, যেখানে দুই বছর আগে ৩ থেকে ৪ কেজি ওজনের রুই মাছ দেখলেও আজ তা নেই। মাছ,পাথর ধান সুনামগঞ্জের প্রান উল্লেখ করে সোহেল আহমদ বলেন, প্রাকৃতিকভাবে মাছের উৎপাদন বাড়াতে হলে পোনা মাছ নিধন বন্ধ করতে হবে। এ জন্য মৎস্যজীবি সমিতিকে সচেতন হতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email