দুই বিদেশি নাগরিক হত্যা সবার ওপর প্রভাব ফেলেছে: মার্কিন রাষ্ট্রদূত

0
124
Marsia Barnicut

ঢাকা: দুই বিদেশি নাগরিক হত্যা সবার ওপর প্রভাব ফেলেছে উল্লেখ করে মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেছেন, তাবেলা ও কোনিওর পরিবারের প্রতি আমি আবারো সহমর্মিতা জানাচ্ছি। এসব অর্থহীন মৃত্যু আমাদের সবার ওপর প্রভাব ফেলেছে। বিদেশিদের উষ্ণভাবে বরণ করে নেয়ার বাংলাদেশিদের ঐহিত্যকে আমি সাধুবাদ জানাই।

তিনি বলেন, চলমান ঝুঁকির পরিপ্রেক্ষিতে বিদেশিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার অনুরোধের প্রতি সরকার খুবই ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে। ফেইসবুক ব্যবহারকারীদের সঙ্গে কথোপকথনে (চ্যাট) এক প্রশ্নের জবাবে বার্নিকাট এ কথা বলেন। নারীর ক্ষমতায়ন ও লিঙ্গ সমতার ওপর এই চ্যাট আয়োজন করা হয়েছিল।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, জিএসপি সুবিধা স্থগিত করার পরও যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক রফতানি প্রতি বছরই বেড়েছে। শুল্কমুক্ত সুবিধা পাওয়া কোনো দেশের ক্ষেত্রেও এমনটা ঘটেনি। তৈরি পোশাক রফতানি থেকে বাংলাদেশের নারীরা উপকৃত হচ্ছে।

বার্নিকাট আরো বলেন, বাংলাদেশের প্রায় অর্ধেক নারী। তাই দেশটির যে কোনো সফলতায় নারীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। জাতীয় উন্নয়নের জন্য নারীর ক্ষমতায়ন অত্যাবশ্যক। তিনি বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতে নারীরাই মূল চালিকাশক্তি। এই পোশাক রফতানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশের একক বৃহত্তম বাজার যুক্তরাষ্ট্র।

রাষ্ট্রদূত বলেন, জিএসপি কোনো দেশকেই যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তৈরি পোশাক রফতানির সুযোগ দেয় না। বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের রফতানি হওয়া এক শতাংশেরও কম পণ্য জিএসপি সুবিধা পেত, যা ২০১৩ সাল থেকে স্থগিত করা হয়েছে। জিএসপি পুনর্বহালের জন্য বাংলাদেশ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে আমি আস্থাশীল।

Print Friendly, PDF & Email