দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব চলছে: এরশাদ

0
350

Ershad 01
ঢাকা: বিএনপি ষড়যন্ত্র করছে অভিযোগ করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে বলেছেন, ষড়যন্ত্র করছেন। ঘরে বসে মিটিং করছেন। লাভ নেই। মানুষ আপনাদের পরিত্যাগ করেছে। প্রধানমন্ত্রীর এই বিশেষ দূত বলেন, গণতন্ত্রকে ভালোবেসে নয়, এরশাদকে ভয় করে সংসদীয় সরকার পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। এই সংসদীয় পদ্ধতি এরশাদ আতঙ্কের ফল। দেশে এখন সন্ত্রাসের রাজত্ব চলছে। দেশে এখন টেন্ডারবাজি, রাহাজানি, সন্ত্রাস, হত্যা, গুম, শিক্ষাঙ্গনে সন্ত্রাসের রাজত্ব চলছে। সন্ত্রাস এখন স্লোগানে পরিণত হয়েছে। আমরা ক্ষমতায় গেলে গুম-খুন থাকবে না। শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরে আসবে।
শনিবার রাজধানীর কাকরাইলে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় পার্টি পালিত ‘৬ ডিসেম্বর সংবিধান সংরক্ষণ দিবস’-এর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
জাতীয় পার্টির ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন দলটির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য পানি সম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, আবুল কাশেম, সাহিদুর রহমান টেপা, শেখ সিরাজুল ইসলাম, এস এম ফয়শল চিশতী, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, ভাইস চেয়ারম্যান রওশন আরা মান্নান এমপি, সিনিয়র-যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া প্রমুখ।
সরকারকে উদ্দেশ করে এরশাদ বলেন, শুনছি গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়াবেন। শোনা যায় গত এক বছরে সুইস ব্যাংকে হাজার কোটি টাকা পাচার হয়েছে। কারা এই টাকা পাচার করেছে। এসব টাকা ফেরত আনুন। এই টাকা ভর্তুকি দিন। গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়াবেন না।
৬ ডিসেম্বর স্বেচ্ছায় ক্ষমতা ছেড়েছিলেন দাবি করে এরশাদ বলেন, ৬ ডিসেম্বর সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষায় আমি ক্ষমতা ছেড়েছিলাম। সারাদেশের কোথাও আন্দোলন হয়নি। শুধু ঢাকায় সামান্য আন্দোলন হয়েছে। আমি উপরাষ্ট্রপতি হিসেবে বিচারপতি শাহাবুদ্দিনকে নিয়োগ করি। তার কাছে পদত্যাগ করি। কিন্তু তিনি আমাকের গ্রেফতার করেন। শাহাবুদ্দিন বেঈমান। এরশাদ ক্ষমতায় গিয়ে ‘বেঈমান’ শাহাবুদ্দিনের বিচার করবেন বলে দাবি করেন।
তিনি বলেন, কেউ কেউ আজকের এই দিনটিকে স্বৈরাচার পতন দিবস হিসেবে পালন করে। কিন্তু আমরা বলি এটা সংবিধান সংরক্ষণ দিবস। আমরা সাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করেছিলাম। সাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরকে পতন বলা যাবে না, ‘বলতে হলে সংবিধানের পতন বলতে হবে’। সেদিন আন্দোলন ঢাকায় সীমাবদ্ধ ছিল।
এরশাদ বিএনপিকে উদ্দেশ করে বলেন, এদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে লজ্জাজনক ঘটনা হলো ১৫ ফেব্র“য়ারির নির্বাচন। এই নির্বাচনে ১৫ দিনই আপনারা ক্ষমতায় থাকতে পারেননি। এমন ধিক্কারজনক বিদায় পৃথিবীর ইতিহাসে আর নেই। আপনারা কল-কারখানা বন্ধ করে মানুষকে বেকার বানিয়েছেন। আমাদের কাছে সব হিসাব আছে। সব হিসাব নিব। আমরা ক্ষমতায় গিয়ে সব হিসাব নেব।

Print Friendly, PDF & Email