Home Uncategorized নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবীতে সিলেট আইএইচটি’র মানববন্ধন

নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবীতে সিলেট আইএইচটি’র মানববন্ধন

600
0

স্টাফ রির্পোটার:

দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রাবাসে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ, চাঁদাবাজি, সীট বাণিজ্য, ইভটিজিংকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবীতে ইন্সটিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি সিলেট ‘আইএইচটি’র সাধারণ শিক্ষার্থীরা শনিবার ১৪ জুলাই ক্যাম্পাসে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

আইপিএস সাকিব হাসানের সভাপতিত্বে ও ইশরাকুল হাসান সৈকতের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, বিগত প্রায় ২-৩ বছর ধরে ছাত্রাবাসে সীট নিয়ে বাণিজ্য এবং শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে চাঁদা আদায় করে আসছে বহিরাগত সন্ত্রাসীরা। তারা ছাত্রাবাসের ডায়নিং হতে প্রতি মাসে মোটা অংকের চাঁদা না পেলে নানাভাবে শিক্ষার্থীদের হয়রানি এবং মারধর করতো। এই অবস্থা অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে এবং ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের নিরাপদ অবস্থান নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় সকল শিক্ষার্থীদের নিয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

উল্লেখ্য গত রমজানে ছাত্রাবাসে শিক্ষার্থীরা কমে গেলে সন্ত্রাসীরা ছাত্রাবাসে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে ঢুকে ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, মোটা অংকের টাকা এবং মূল্যবান আসবাবপত্র লুট করে। পরে এ ব্যাপারে এয়ারপোর্ট থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। সর্বশেষ গত বুধবাব ১১ জুলাই রাত আটটার দিকে ছাত্রাবাসের ডায়নিং এর মিল চালু হলে ২০/২৫ জন বহিরাগত সন্ত্রাসী ছাত্রাবাসে ঢুকে শিক্ষার্থীদের কাছে চাঁদা দাবী করে। শিক্ষার্থীরা চাঁদা দিতে না চাইলে তারা শিক্ষার্থীদের উপর চড়াও হয়। তখন সাধারণ শিক্ষার্থীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের ক্যাম্পাস হতে তাড়িয়ে দেয়।

পরে সন্ত্রাসীরা একত্রিত হয়ে অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে দফায় দফায় ছাত্রাবাসে হামলা করে। এসময় তারা চারটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। হামলায় আহত হয় অন্তত ১০-১৫ জন সাধারণ শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে পুলিশকে অবহিত করা হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

মানববন্ধন শেষে ছাত্রাবাস সুপার ডা: সুদর্শন সেন শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করে বলেন, প্রশাসনের সাথে আমাদের কথা হয়েছে, সন্ত্রাসীরা আর এখানে কোনো হামলা করবে না। তিনি শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ করেন।

সার্বিক বিষয়ে ইন্সটিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির প্রিন্সিপাল ডা: আজিজ আহমেদ মালিক জানান, বিষয়টি অনাকাঙ্ক্ষিত। ক্যাম্পাসের নিরাপত্তা বিধানে পুলিশ কমিশনারের কাছে এখানে পুলিশ ক্যাম্প স্থাপনের জন্য আবেদন করা হয়েছে।

Previous articleসরকার বিরোধী দলের কথা বলার অধিকার কেড়ে নিয়েছে: ফখরুল
Next articleসিলেটকে বিশ্বের অন্যতম সেরা নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই: এডভোকেট জুবায়ের