পর্যবেক্ষক নিয়োগেও নির্বাচন কমিশনের দুর্নীতি

0
133

Logo ec
ঢাকা: এবার নির্বাচনী পর্যবেক্ষক নিয়োগেও নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সুজন ও অধিকার এর মত সংস্থাকে বাদ দিয়ে ভূইফোঁড় মানবাধিকার ও সমাজ উন্নয়ন সংস্থা ‘মওসুস’ নামের অচেনা, অজানা একটি প্রতিষ্ঠানের বিপুল সংখ্যক লোককে নির্বাচন পর্যবেক্ষকের অনুমতি দেয়ার বিষয়টি রহস্যজনক বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। এটাকে একটা নীল নকশা হিসেবেও অভিহিত করেছে দলটি।
রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ অভিযোগ করেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সিটি নির্বাচনের সমন্বয়কারী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ।
তিনি বলেন, ১৬ এপ্রিল নির্বাচন কমিশন থেকে একটা চিঠি এসেছে। চিঠি পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে, নির্বাচনে ১৫টি সংস্থার আড়াই হাজারেরও বেশি লোককে পর্যবেক্ষণের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে দক্ষিণে ১৪৪৫ ও উত্তরে ১৩৩০ জন পর্যবেক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। তার মধ্যে ওই সংগঠনটির (মওসুস) ৫০০ করে ১০০০ জনকে দুই সিটিতে পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে যা রহস্যজনক।
তিনি জানান, এ তালিকা থেকে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) ও মানবাধিকার সংস্থা অধিকারকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, কোন্ গাইড লাইন ফলো করে এটা করা হয়েছে তা আমরা জানতে চাই। এই তালিকা করার আগে কারা পর্যবেক্ষক থাকবে তা নিয়ে মেয়র প্রার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করা উচিত ছিল।
সিটি নির্বাচনে বিএনপি’র এ সমন্বয়কারী আরো বলেন, সরকার র্যািব-পুলিশের মাধ্যমে তাদের নীলনকশা বাস্তবায়নের জন্য নির্বাচন কেন্দ্রে এজেন্টদের প্রবেশ করতে দেবেনা এবং তাদের বের করেও দিতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email