পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি করতে দেবো না: মমতা

0
173

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধন আইনের বিরুদ্ধে কলকাতার রাস্তায় বিক্ষোভ মিছিল করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ সংবিধানের সঙ্গে এই আইনের বিরোধ থাকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, আমরা ধর্মের ভিত্তিতে বিভক্তি মানি না। বাংলায় এনআরসি করতে দেবো না।

বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যাওয়া মুসলিম ভিন্ন ছয় ধর্মের শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার বিধান রেখে পাস হওয়া আইনের বিরুদ্ধে রোববার মধ্যরাতে সারা ভারতের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। তার আগে দুই দিন ব্যাপক সহিংস বিক্ষোভ হয়েছে পশ্চিমবঙ্গজুড়ে। বিক্ষিপ্তভাবে চলা এই আন্দোলনের নেতৃত্ব নিলেন এবার মমতা নিজেই।

দেশটির গণমাধ্যমগুলোর খবরে জানানো হয়, ভারতের সংবিধানের প্রণেতা ভীমরাও রামজি আম্বেডকরের মূর্তির পাদদেশ থেকে বিশাল এই মিছিল শুরু হয়ে কলকাতার রাজপথ ঘুরে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মস্থান জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ির সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে উপস্থিত জনতার উদ্দেশে ভাষণ দেন মমত।

তিনি বলেন, জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িকে সাক্ষী রেখে কয়েকটা কথা বলতে এসেছি। আপনারা ভোট দেন না? ভোটার তালিকায় আপনার নাম নেই? আপনার ছেলেমেয়ে স্কুলে পড়ে না? আমরা সবাই নাগরিক। আপনি (মোদি) আবার কিসের নাগরিকত্ব দেবেন?

মমতা বলেন, নাগরিত্ব সংশোধন আইন প্রত্যাহার করতে হবে। যতক্ষণ না প্রত্যাহার করা হবে, ততক্ষণ আমরা রাস্তায় থাকব। এই লড়াই আর থামবে না। মমতা বলেন, আমাদের মধ্যে কোনও ভেদাভেদ নেই। আমরা ধর্মের ভিত্তিতে ভাগাভাগি মানি না। ধর্ম যার যার, সংবিধান সবার।

আমি বাংলায় আছি। আমার মৃতদেহের উপর দিয়ে এনআরসি করতে হবে, সিএবি করতে হবে-বললেন মমতা।

শপথবাক্য পাঠ করাতে গিয়ে মমতার সঙ্গে উপস্থিত জনতা বলেন- আজকের শপথ: আমরা সবাই নাগরিক। সর্ব ধর্ম সমন্বয়ই আমাদের জীবন আদর্শ। কাউকে বাংলা ছাড়তে দেব না। নিশ্চিন্তে থাকব। শান্তিতে থাকব। বাংলায় এনআরসি ও ক্যাব করতে দিচ্ছি না। দেব না। শান্তি রাখতে হবে। জয় হিন্দ। বন্দে মাতরম। জয় বাংলা।

Print Friendly, PDF & Email