Home জাতীয় পাকিস্তান থেকে মুক্ত হয়ে ভারতের দাসত্ব চাই না

পাকিস্তান থেকে মুক্ত হয়ে ভারতের দাসত্ব চাই না

303
0

Kader Siddiki 03
ঢাকা: সংকট সমাধানে রাজনৈতিক উদ্যোগ নিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ফের আহ্বান জানিয়েছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম। শনিবার বিকেলে মতিঝিলে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলটির ১৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশে তিনি আহ্বান জানান।
এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আপনি ভারতের জোরে নাচেন? আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বলতে চাই, পাকিস্তান থেকে মুক্ত হয়ে আমরা ভারতের দাসত্ব চাই না। আমরা ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্ব চাই, দাসত্ব চাই না।’
তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আমারও কিছু সম্পর্ক আছে। চিন্তা করতেছি, কালকে থেকে বাংলাদেশে যা হইতেছে তা নিয়ে ভারতের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলবো। বলবো- বাংলাদেশে তো আপনাদের সম্মান চুরমার হয়ে যাচ্ছে। কী কথা হয়েছে তিন/চার দিন পরে সেটা জানাবো।’
সংলাপের বিরোধিতাকারীদের সমালোচনা করে বঙ্গবীর বলেন, ‘মাইট্যা মন্ত্রীরা বলে- যারা আলোচনার কথা বলে, তারা দেশের শত্রু। আমি তো বেগম জিয়ার সঙ্গে আলোচনার কথা বলিনি। বলেছি- প্রয়োজনে আপনাকে চাড়ালের সঙ্গেও আলোচনা করা লাগতে পারে, কারণ আপনি প্রধানমন্ত্রী।’
তিনি বলেন, ‘আপনি মাইট্যা পুলিশ পাঠাবেন না। আমি নামাজ পড়তে গেছি আর আমার তাঁবু, বসবার চৌকি সব পুলিশ নিয়ে গেছে। এ রকম জালিম সিমারও ছিল না। আফামণি, পারলে আমারে নিয়া যাইতেন। ভয় দেখাবেন না, আমার সব ভয় কেটে গেছে।’
কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘ইনু ভাই কথা বললে শরীরটা চিড় চিড় করে। তার গণবাহিনী ছিল মানুষ মারা বাহিনী। ওই বাহিনীর নেতা যদি আইনশৃঙ্খলার কথা বলে, তাহলে মানুষ মানবে?’
সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের শওকত হোসেন নিলু, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

Previous articleসঙ্কট নিরসনে পদক্ষেপের নামে মানুষ হত্যার নির্দেশ দিয়েছে সরকার: খুশি কবির
Next articleঅবৈধ প্রধানমন্ত্রীর হুকুমে ক্রসফায়ার চলছে: ২০ দল