পোশাক পরিবর্তনে গিয়ে গোপন ক্যামেরার শিকার ভারতের শিক্ষামন্ত্রী

0
118

Sriti Iraniআন্তর্জাতিক ডেস্ক: স্মৃতি ইরানি (৩৯) ভারতের কেন্দ্রীয় শিক্ষা ও মানবসম্পদ মন্ত্রী। শুরু থেকেই তার পিছে লেগে আছে বিতর্ক ও গুঞ্জন। আবারও তিনি আলোচনায় এলেন। তবে এবার তিনি গোপন ক্যামেরার শিকার হয়েছেন। গোয়ার সমুদ্র সৈকতে ছুটি কাটাচ্ছেন স্মৃতি ইরানি। সেখানে জনপ্রিয় পোশাক বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ফ্যাবিন্ডিয়ার একটি আউটলেটে গিয়েছিলেন। পোশাক পছন্দ করার পর তা শরীরের সঙ্গে মানায় কিনা, তা দেখার জন্য ট্রায়াল রুমে যান। ট্রায়াল রুমে পোশাক পরিবর্তনের সময় হঠাৎ নজরে পড়ে ‘গোপন ক্যামেরা’। তাৎক্ষণিক চিৎকার দিয়ে উঠেন ইরানি এবং স্বামী ব্যবসায়ী জুবিন ইরানকে ডাকেন।
এরপর কালবিলম্ব না করে স্মৃতি ইরানি আইনের আশ্রয় নেন। গোয়ার বিধানসভার সদস্য বিজেপি নেতা মাইকেল লোবোকে বিষয়টি জানানোর পর স্থানীয় থানায় অভিযোগ দাখিল করেন লোবো।
এনডিটিভিকে লোবো বলেন, ‘স্মৃতি ইরানি পোশাক কেনার জন্য ট্রায়াল রুমে গিয়ে তা ঠিকঠাক মানাচ্ছে কিনা, তা দেখে নেন। সে সময় আগে থেকে লুকানো গোপন ক্যামেরায় সেই দৃশ্য ধারণ করা হয়। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে তিনি তার স্বামী জুবিন ইরানিকে জানান। পরে আমাকে জানান।’
স্মৃতি ইরানি নিজেই গোপন ক্যামেরাটি চিহ্নিত করেন। ট্রায়াল রুমের ডানকোণে এমনভাবে সেটি লাগানো রয়েছে, যা সহজে কেউ দেখতে পারবে না, বুঝতেও পারবেও না। কিন্তু তা স্মৃতি ইরানির চোখ এড়ায়নি।
বিধায়ক লোবো জানান, তিনি খবর দিলে পুলিশ এসে ফ্যাবিন্ডিয়ার আউটলেটে তল্লাশি চালিয়ে ক্যামেরাটি উদ্ধার করে। ওই আউটলেটের ম্যানেজারের কক্ষের একটি কম্পিউটার থেকে গোপন ক্যামেরাটি পরিচালনা করা হয়। তিনি আরও বলেন, পরে ভিডিও চেক করে পুরো ঘটনা ধারণের দৃশ্য দেখতে পেয়েছি। কেউ এটা ধারণ করে দেখে থাকেন।
পুলিশ জানায়, চার মাস আগে ক্যামেরাটি স্থাপন করা হয়। ক্রেতাদের ট্রায়ালের অসংখ্য ভিডিও ফুটেজ আছে এটিতে। তবে স্মৃতি ইরানি যখন আউটলেটে যান তখন ম্যানেজার অফিসে ছিলেন না। টাইমস অব ইন্ডিয়া

Print Friendly, PDF & Email