বন্যার্তদের দুর্ভোগ চেপে যাওয়ার চেষ্টা করছে সরকার: বিএনপি

0
262

ঢাকা: দেশের ২৪টি জেলায় এক কোটির বেশি মানুষ বন্যায় পানিবন্দি বলে দাবি করেছে বিএনপি। দলটির অভিযোগ, বন্যার্তদের দুর্ভোগ লাঘবে সরকার নজর না দিয়ে বন্যার বিষয়টি-ই চেপে যাওয়ার চেষ্টা করছে। বুধবার বিকেলে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এই অভিযোগ করেন বিএনপির মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন।

তিনি বলেন, সরকার দেশের বন্যা পরিস্থিতি সামাল না দিয়ে চেপে যাওয়ার চেষ্টা করছে। জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় বলেই বন্যাকবলিত জনগণের প্রতি তাদের কোনো দায়িত্ব নেই।

আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, ‘কয়েক দিন আগের টানা বর্ষণ ও নদ-নদীর পানি বৃদ্ধিতে দেশের প্রায় ২৪টি জেলার বন্যাকবলিত মানুষ মাথা গোজার ঠাঁই হারিয়েছে। তাদের মাঠের ফসল বন্যায় কেড়ে নিয়েছে। উপযুক্ত ত্রাণও তারা পাননি। ফলে বন্যাকবলিত এলাকার মানুষের মধ্যে হাহাকার ছড়িয়ে পড়ার পরও সরকার তাদের পাশে দাঁড়াতে ব্যর্থ হয়েছে।’

তিনি বলেন, কয়েক দফার বন্যায় বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলের ও অন্যান্য বন্যা কবলিত এলাকার কয়েক লাখ হেক্টর জমির ফসলহানি, মাছের খামার, পুকুর বন্যায় তলিয়ে যাওয়ায় আবাদী জমির মানুষ দিশেহারা। ত্রাণের অপর্যাপ্ততা ও বিশুদ্ধ খাবারের পানির সংকটে মানুষের জীবন বিপন্ন।

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, ‘অত্যন্ত দুঃখের বিষয়- এ বিষয়গুলো পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ার পর সরকারের তরফ থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। উল্টো ত্রাণ ও দুর্যোগমন্ত্রী গণমাধ্যমে বন্যার খবর বেশি করে না ছাপানোর পরামর্শ দিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘জনগণের কাছে দায়বদ্ধতা না থাকায় বিনা ভোটের এই সরকার আজ জনগণের দুর্যোগের মুহূর্তে তাদের পাশে দাঁড়াচ্ছে না। সরকারের এ ব্যর্থতা ও নীরব থাকাকে আমরা নিন্দা জানাই।’

রিপন বন্যা উপদ্রুত এলাকায় জরুরি ত্রাণ পাঠানোর জন্য দাবি জানান। একইভাবে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের পুনর্বাসনে কার্যকর সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়ারও আহ্বান জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে বন্যা নিয়ে সরকারের নীরবতার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বন্যা পরিস্থিতি উত্তরণের পর কৃষকদের সুদমুক্ত ঋণ দেওয়ারও দাবি জানান বিএনপির এই মুখপাত্র।

Print Friendly, PDF & Email