বরিশালকে ৭৮ রানে হারালো চিটাগাং

0
387

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ক্রিকেটের চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় পর্বে শেষ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে বরিশাল বুলসকে ৭৮ রানে হারিয়েছে চিটাগাং ভাইকিংস। এ দিন প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৮৫ রান করে চিটাগাং। জবাবে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১০৭ রান তুলতে সক্ষম হয় বরিশাল।
চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা পৌনে ৬ টায় শুরু হওয়া ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় চিটাগাং অধিনায়ক তামিম। ব্যাট করতে নেমে ডোয়াইন স্মিথের সঙ্গে ওপেনিং জুটিতে দারুণ ইনিংস গড়ে দলীয় ৪৩ রানের সময় ১৯ রানে বিদায় নেন অধিনায়ক তামিম। এরপর দুর্দান্ত ব্যাটিং করে চলতি বিপিএল আসরে নিজের প্রথম হাফসেঞ্চুরি তুলে নিয়ে শেষ পর্যন্ত ৬৯ রানে সাজঘরে ফেরেন আরেক ওপেনার স্মিথ। ৪৯ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কার সাহায্যে এই ইনিংস খেলেন তিনি। এটিই ছিল এদিন চিটাগাংয়ের সর্বোচ্চ ব্যাক্তিগত সংগ্রহ। এছাড়া এদিন চলতি আসরে নিজের প্রথম হাফসেঞ্চুরি পেয়েছেন দলটির পাক রিক্রুট শোয়েব মালিক। এমরিতের বলে সাজঘরে ফেরার আগে তিনি করেছেন ৩০ বলে ৬৩ রান। এই ইনিংসে তিনি হাঁকিয়েছেন ৯ চার ও ২ টি ছক্কা।
বরিশালের পক্ষে ২ টি করে উইকেট নিয়েছেন কামরুল ইসলাম রাব্বি ও থিসারা পেরেরা। এছাড়া একটি উইকেট নিয়েছেন এমরিত।
জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে বরিশাল বুলস। শেষ পর্যন্ত তারা ১৮.৪ বলে সবকটি উইকেট হারিয়ে মাত্র ১০৭ তোলে। দলের পক্ষে এনামুল হক ৩৭ বলে ১ চার ও ৪ ছক্কায় সর্বোচ্চ ৪২ রান করেন। এছাড়া অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ১৯ রান ও তাইজুল ইসলাম ১২ রান করেন। বাকি সাত জনের কেউই দুই অঙ্ক ছুতে পারেনি।
চট্টগ্রামের পক্ষে মোহাম্মদ নবী ৩টি, তাসকিন আহমেদ ও সুভাশিষ রয় ২টি উইকেট লাভ করেন।
চলতি আসরে বরিশাল ৬ ম্যাচ খেলে ৩টি জয় ও ৩ টিতে পরাজয় নিয়ে রয়েছে পয়েন্ট তালিকার পঞ্চম স্থানে। পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে ৬। আর বরিশালের চেয়ে একটি ম্যাচ বেশি খেলে ৩ টি জয় নিয়ে তামিমের চিটাগাংয়ের অবস্থান তালিকার চতুর্থ স্থানে। পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে ৬।
চিটাগাং ভাইকিংস একাদশ: তামিম ইকবাল, দোয়ান স্মিথ, শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ নবী, এনামুল হক, তাসকিন আহমেদ, আব্দুর রাজ্জাক, জাহারুল ইসলাম, তিমাল মিলস, জাকির হোসেন ও নাজমুল হোসেন মিলন।
বরিশাল বুলস একাদশ: মুশফিকুর রহিম, শাহরিয়ার নাফীস, শামসুর রহমান, আল-আমিন হোসেন, মেহেদী হাসান, তাইজুল ইসলাম, দিলশান মুনাবেরা, রায়াদ এমরিত, ডেভিড মালন, থিসারা পেরেরা, মনির হোসেন।

Print Friendly, PDF & Email