বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে সুইডিশ প্রধানমন্ত্রীর সহায়তার আশ্বাস

0
208

ambassador sarwar - pm stefan lofven_58351
সুইডেন: সুইডেনের নবনিযুক্ত প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভেন বাংলাদেশের পোশাক-শিল্প খাতে বিশ্বমান অর্জনে তার সরকারের অব্যাহত সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত এক মত বিনিময় সভায় সুইডেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম সারোয়ার-এর সাথে একান্ত আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভেন এ অভিমত ব্যক্ত করেন। এসময় রাষ্ট্রদূত গোলাম সারোয়ার সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী কে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক গৃহীত পদক্ষেপসমূহের ব্যাপারে অবহিত করেন।
বিশেষ করে, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পের উন্নয়নে ও বিশ্বমান অর্জনে শেখ হাসিনার সরকারের নেতৃত্বে পোশাক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান (বিজিএমইএ) ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং উত্তর আমেরিকার দেশসমূহের আমদানিকারকদের যুগপৎ কর্মসূচিসমূহ সম্বন্ধে তিনি সুইডিশ প্রধানমন্ত্রীকে বিস্তারিত জানান।
ট্রেড ইউনিয়ন এর সাথে দীর্ঘদিনের ব্যক্তিগত সম্পৃক্ততা ও অভিজ্ঞতার প্রেক্ষাপটে সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভেন বিশ্বব্যাপী শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ে বলিষ্ঠ ভূমিকা ও বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক সাম্প্রতিককালে গৃহীত পদক্ষেপ সমূহের ভূয়সী প্রশংসা করেন। এছাড়াও কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছানোর অভিপ্রায়ে বাংলাদেশ সরকারের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
এ প্রসঙ্গে তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে ইতালির মিলানে সম্প্রতি দ্বিপাক্ষিক ফলপ্রসূ আলোচনার কথা উল্লেখ করেন।
উত্তর ইউরোপীয় দেশসমূহে বাংলাদেশের রফতানি বৃদ্ধি ও বাংলাদেশে এসব দেশের বিনিয়োগ বৃদ্ধিকল্পে অব্যাহত প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে রাষ্ট্রদূত গোলাম সারোয়ার খ্যাতনামা ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান এইচ এ্যান্ড এম, লিনডেক্স প্রভৃতির কর্ণধারদের সাথে নিয়মিতভাবে আলোচনায় বসেন। ইতোমধ্যে বিশ্বখ্যাত সুইডিশ পোশাক কোম্পানি এইচ এ্যান্ড এম আগামী পাঁচ বছরে বাংলাদেশ থেকে আমদানি দ্বিগুন করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছে যা পোশাকখাতের চলমান গতিকে আরও ত্বরান্বিত করবে।
উল্লেখ্য, নর্ডিক অঞ্চলের দেশসমূহে বাংলাদেশের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ক্রমবর্ধমাণ উদ্যোগ ও প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার জন্য সুইডেনের বাংলাদেশ দূতাবাসের আন্তরিক প্রয়াসের পরিপ্রেক্ষিতে উত্তর ইউরোপের দেশসমূহে বাংলাদেশের রফতানি আয় বিগত পাঁচ বছরে দ্বিগুনের বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email