বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রামে আসাদ দিবস তাৎপর্যপূর্ণ: প্রধানমন্ত্রী

0
244

Hasina
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রামের ইতিহাসে শহীদ আসাদ দিবস তাৎপর্যপূর্ণ। তিনি বলেন, কারাগারে আটক বঙ্গবন্ধুর মুক্তির দাবিতে গর্জে ওঠে সারাবাংলার মানুষ। ১৯৬৯ সালের ২০ জানুয়ারি ঢাকা মেডিকেল কলেজ চত্বরে ছাত্র-জনতার এক সমাবেশে পুলিশের গুলিতে শহীদ হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্সের ছাত্র আসাদুজ্জামান। প্রধানমন্ত্রী শহীদ আসাদ দিবস উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে এ কথা বলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, পাকিস্তানী শাসকদের বৈষম্যমূলক আচরণ এবং দমন-পীড়নে বাংলার মানুষ যখন দিশেহারা, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ছয়-দফা তখন বাঙালির মুক্তির দিশারী হিসেবে আবির্ভূত হয়।
তিনি বলেন, ছয়-দফার সপক্ষে প্রবল জনমতের জোয়ার দেখে আতঙ্কিত সামরিক জান্তা আইয়ুব খান বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা দায়ের করে যা আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা নামে সমধিক পরিচিত। বাঙালি জাতির স্বাধীনতা আন্দোলন নতুন মাত্রা পায়। বঙ্গবন্ধু নিপীড়িত ও নির্যাতিত বাঙালির মুক্তির মূর্ত প্রতীকে পরিণত হন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, শহীদ আসাদের এই আত্মত্যাগ চলমান আন্দোলনকে বেগবান করে। পরবর্তীকালে গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে পতন হয় স্বৈরশাসক আইয়ুব খানের। প্রধানমন্ত্রী শহীদ আসাদসহ আত্মোৎসর্গকারী সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email