বাকৃবিতে ছাত্রলীগের গোলাগুলিতে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ

0
199

ঢাকা: ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার রাতে ময়মনসিংহে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ও জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জসীম উদ্দিন গ্রুপের মধ্যে সশস্ত্র ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, গুলি বিনিময়, ককটেল বিস্ফোরণ ও সংঘর্ষের ঘটনায় বুধবার সকালে সব হল বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। সকাল ১০টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রক্টর প্রফেসর ড. এ কে এম জাকির হোসেন জানান, ক্যাম্পাসে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে রাতে জরুরি বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় ৭ জুলাই থেকেই বন্ধ। কিন্তু হলগুলো শনিবার পর্যন্ত খোলা ছিল। সংঘর্ষের কারণে বুধবার সকাল ১০টার মধ্যেই হল ছাড়ার জন্য বলা হয়েছে। বুধবার সেহেরীর পর ক্যাম্পাসে মাইকিং করে হল ছাড়তে বলা হয় বলে জানান তিনি।

 মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ও জেলা ছাত্রলীগের সংঘর্ষে আহত হয়েছে কমপক্ষে ১০ জন। এদের মধ্যে বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগ সেক্রেটারী সাইফুল ইসলামসহ ৪ জনকে আহতবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম জানান, বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগের সাথে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জসীম উদ্দিন গ্র“পের নেতাকর্মীদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কেওয়াটখালী এলাকায় বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি মোর্শেদুজ্জামান বাবুর মোটর বাইক পুড়িয়ে দিলে দু’গ্র“পের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা রাত সাড়ে ১১টার দিকে সশস্ত্র অবস্থায় কেওয়াটখালীস্থ জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিনের বাসায় হামলা ও ভাংচুর করে ফেরার পথে দুগ্র“পের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, গুলি বিনিময়, ককটেল বিস্ফোরণ ও সংঘর্ষ হয়। এসময় স্থানীয়রা বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগ সেক্রেটারী সাইফুল ইসলামসহ চার জনকে আহতবস্থায় আটক করে পুলিশে সোপর্দ করলে তাদেরকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email