বাড়ি ফেরার পথে তরুণী বাউল শিল্পী অপহরণ

0
273

জগন্নাথপুর: বাউল গানের আসর থেকে বাড়ি ফেরার পথে জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের অনন্ত গোলাম আলীপুর গ্রামের এক তরুণী বাউলশিল্পী (১৬)কে জোরপূর্বক অপহরণ করে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় বাউলশিল্পীর বাবা সরাফত আলী বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় তিনজনের নাম উল্লেখ করে ও দুইজন অজ্ঞাতনামীয় যুবকের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। যার প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনার তদন্ত ও অপহৃত বাউলশিল্পীকে উদ্ধারে অভিযানে নেমেছে।
পুলিশ ও তরুণী বাউলশিল্পীর বাবার দায়ের করা লিখিত অভিযোগ থেকে জানা গেছে, উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের অনন্ত (গোলামআলীপুর) গ্রামের সরাফত আলীর মেয়ে বাউলশিল্পী (১৫) বুধবার রাতে কলকলিয়া ইউনিয়নের খাশিলা গ্রামে অনুষ্ঠিত একটি বাউলগানের আসরে বাবাকে সাথে নিয়ে সঙ্গীত পরিবেশন করতে যান। অনুষ্ঠান শেষে ফেরার পথে বৃহস্পতিবার ভোররাতে জগন্নাথপুর-রানীগঞ্জ সড়কের তিন নং বেইলি সেতুর পাশে হবিবনগর এলাকায় পৌঁছামাত্র তিনটি মোটরসাইকেল করে পৌর এলাকার আলখানাপাড় গ্রামের সাবরু মিয়া, তার সহযোগী একই এলাকার মনির মিয়া ও টিয়ারগাঁও গ্রামের সাইদুল মিয়াসহ ৫ যুবক অটোরিকশা চালক ও বাউলশিল্পীর পিতা সরাফত আলীকে মারধর করে জোরপূর্বক মেয়েটিকে মোটরসাইকেল করে তুলে নিয়ে যায়।
মেয়েটির বাবা সরাফত আলী জানান,আমার মেয়ে একজন বাউলশিল্পী। সে এলাকার বিভিন্ন বাউল গানের আসরে গান পরিবেশন করে। সে সুবাদে জগন্নাথপুর পৌর এলাকার আলকানাপাড় এলাকার বাসিন্দা সাবরু মিয়ার সাথে গানের আসরে আমাদের পরিচয়। বেশ কিছু দিন ধরে সাবরু মিয়া আমার মেয়েকে মুঠোফোনে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তার কথায় মেয়ে সম্মত না হওয়ায় সে আমার মেয়েকে অপহরণের হুমকি দেয়। বিষয়টি আমি বাউল গীতিকার সমিতির নেতাদের অবহিত করে বিচার প্রার্থী ওই। বৃহস্পতিবার ভোরে বাউল গানের আসর থেকে বাড়ি ফেরার পথে আমাকে ও অটোরিকশা চালককে অস্ত্র দেখিয়ে জিম্মি করে মারধর করে আমার মেয়েকে জোর করে সাবরু মিয়ার নেতৃত্বে মোটরসাইকেল করে তুলে নিয়ে গেছে। আমি জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে মেয়েকে উদ্ধারে পুলিশের সহায়তা চেয়ে লিখিত এজাহার দাখিল করেছি।
জগন্নাথপুর থানার উপ পরিদর্শক আতিকুর রহমান জানান, নারী বাউলশিল্পীর বাবার লিখিত অভিযোগ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অপহৃত তরুণী কে উদ্ধারে অভিযানে নেমেছি। জগন্নাথপুর বাউলশিল্পী সমিতির সভাপতি গীতিকার আব্দুল পরান বলেন, তরুণী বাউলশিল্পী অপহরণের ঘটনাটি দুঃখজনক। আমরা এ বিষয়ে তদন্ত পূর্বক পদক্ষেপ নিতে পুলিশের প্রতি অনুরোধ করছি। জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) নব গোপাল দাস বলেন, বাউলশিল্পীর বাবার লিখিত অভিযোগ পেয়ে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধারে অভিযানে নেমেছে। আশা করছি দ্রুত মেয়েটিকে উদ্ধার করে আইননানুগ পদক্ষেপ নেয়া সম্ভব হবে।

Print Friendly, PDF & Email