বিচারকরা চুল পরিমাণ হস্তক্ষেপও বরদাশত করবেন না: প্রধান বিচারপতি

0
137

ঢাকা: বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ স্বাধীন এবং নিরপেক্ষভাবে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। তিনি বলেছেন, বিচারক বা বিচার বিভাগের ওপর চুল পরিমাণ হস্তক্ষেপও বরদাশত করবেন না বিচারকরা। শনিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের শহীদ জগন্নাথ মিলনায়তনে ‘বিচারিক কার্যক্রমের সমন্বয়, সমস্যা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধান বিচারপতি। আদালতে মামলাজট প্রসঙ্গে প্রধান বিচারপতি বলেন, “আইনজীবীরা সহযোগিতা না করলে বিশাল মামলাজট কমানো সম্ভব নয়। তবে মামলাজটের পেছনে শুধু আইনজীবী বা বিচারকরাই দায়ী নয়। জনবল সংকট ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের অভাবও এ জন্য দায়ী।”

এস কে সিনহা বলেন, নির্বাহী বিভাগ আইন প্রবর্তন করে; কিন্তু পর্যাপ্ত জনবল ও অবকাঠামো সৃষ্টি করে না। যেমন অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ আইন এমন একটি আইন। এ আইনের অধীনে অনেক মামলা আছে, কিন্তু জনবল নেই।

প্রধান বিচারপতি মামলাজটের পেছনে আইনজীবীদের মুলতবির আবেদনকেও দায়ী করেন। তিনি বিচারকদের উদ্দেশে বলেন, অনেক আইনজীবী মামলার কার্যক্রমের ওপর মুলতবি চান। যারা বারবার মুলতবির আবেদন নিয়ে আসেন, তাদের মামলার মুলতবি দেবেন না। আর আইনজীবীদের বলব, আপনারা জেলা জজদের সহযোগিতা করবেন। দুপুর তিনটার পরও আদালতের কার্যক্রমে অংশ নেবেন।

কালো গাউন ছেড়ে দেয়ার সময় এসেছে বলেও মন্তব্য করেন প্রধান বিচারপতি। তিনি বলেন, আমাদের এখানে সব সময় কালো গাউন পরে থাকতে হয়। এ নিয়ম ইংল্যান্ড থেকে এলেও অনেক জায়গায় গাউন পরার প্রথা উঠে গেছে। এ নিয়ে আইনজীবী ও বার কাউন্সিলের সোচ্চার হওয়ার সময় এসেছে।
ইউএনডিপির সহযোগিতায় সেমিনারটির আয়োজন করেন ঢাকার বিচারিক আদালত। এতে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ এস এম কুদ্দুস জামান। সেমিনারে আলোচনায় অংশ নেন মুখ্য মহানগর হাকিম শেখ হাফিজুর রহমান, মুখ্য বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান সরকার, ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মোহাম্মদ কামরুল হোসেন মোল্লা, ঢাকার পুলিশ সুপার মো. হাবিবুর রহমান ও ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মাসুদ আহমেদ তালুকদার।
সেমিনারে বক্তব্য শেষে প্রধান বিচারপতি ঢাকার তিনটি বিচারিক আদালতের দৈনন্দিন কার্যতালিকার মোবাইল অ্যাপ উদ্বোধন করেন।
বিচারপ্রার্থী, আইনজীবী ও সংশ্লিষ্ট জনগণকে মোবাইল ফোনে মামলার সব তথ্য জানানোর জন্য নতুন অ্যাপ চালু করা হয়েছে। এতে মামলার পরবর্তী তারিখ ও দৈনিক মামলা নিষ্পত্তির তথ্য ও মামলার রায়ের তথ্য পাওয়া যাবে। এতে ঢাকা জেলা ও দায়রা জজ আদালত, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত ও চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) আদালতের মামলার সব তথ্য পাওয়া যাবে।

Print Friendly, PDF & Email