বিরোধে দিশেহারা বিএনপি, জামালগঞ্জেও ১৪৪ ধারা

0
146

নাঈম তালুকদার: সুনামগঞ্জ তৃণমূলের বেসামাল বিরোধে বিপর্যস্ত বিএনপি। কোন্দল থামাতে ব্যর্থ শীর্ষ নেতারা। ১১ উপজেলায় বিভক্তির কর্মসূচি পালন করছে নেতাকর্মীরা। শক্তহাতে দলের শীর্ষ নেতারা কোন্দল মেটাতে ব্যর্থ হওয়ায় ঘনঘন ১৪৪ ধারার মুখে পড়েছে। বিবদমান পক্ষগুলো একে অন্যকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ দিয়ে পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করায় প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করতে বাধ্য হয়েছে। এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর মধ্যনগরে এবং ২৫ অক্টোবর ধর্মপাশায় বিএনপির দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির কারণে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছিল। এই ১৪৪ ধারা জারি নিয়ে বিরোধী পক্ষকে জেলার দায়িত্বশীল শীর্ষ নেতারা বিরোধী পক্ষকে ‘সরকার দলের দালাল’ হিসেবে চিহ্নিত করছেন।

গত এক মাসের ব্যবধানে মধ্যনগর, তাহিরপুর ও জামালগঞ্জে তিনটি ১৪৪ ধারার মুখে পড়েছে তৃণমূল বিএনপি। সর্বশেষ গতকাল সোমবার রাতে জামালগঞ্জ উপজেলা শহর ও সাচনা বাজারে মঙ্গলবার সকাল-সন্ধ্যা ১৪৪ ধারা জারি করেছে স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন। তবে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক নূরুল হক আফিন্দী ১৪৪ ধারা জারিকৃত এলাকার বাইরে গিয়ে কাউন্সিল সম্পন্নের ঘোষণা দিয়েছেন। উপজেলা বিএনপির বিভক্ত নেতারা জানান, উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক নূরুল হক আফিন্দী মঙ্গলবার জামালগঞ্জ শহরের তেলিয়াপাড়া এলাকায় কাউন্সিলের ডাক দিয়ে ব্যাপক প্রচারণা চালান। কাউন্সিলের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন শেষে তিনি যখন নিশ্চিতে প্রহর গুণছিলেন তখন তাঁর প্রতিপক্ষ গ্রুপ একই সময়ে একই স্থানে পাল্টা কাউন্সিলের ডাক দেয়। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করায় সোমবার সন্ধ্যায় জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম শফি কামাল জামালগঞ্জ উপজেলা শহর এবং পার্শ্ববর্তী সাচনা বাজারে মঙ্গলবার সকাল- সন্ধ্যা ১৪৪ ধারা জারি করেন। এক মাইকিং প্রচারণায় তিনি শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে এবং জনগণের জানমালের নিরাপত্তা রক্ষায় ১৪৪ ধারা জারির ঘোষণা দিয়ে সংশ্লিষ্টদের সভা- সমাবেশ থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেন। জানা যায়, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক নাছির উদ্দিন চৌধুরী গত বছর সাবেক চেয়ারম্যান ও জামালগঞ্জ বিএনপি’র প্রভাবশালী নেতা নূরুল হক আফিন্দীকে আহ্বায়ক করে গত বছর কমিটি গঠন করেন। এ নিয়ে জেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট ফজলুল হক আছপিয়ার বঞ্চিত সমর্থকরা বিক্ষোভ করেন। কিন্তু উপজেলা আহ্বায়ক কৌশলেই একক কর্মসূচি চালাচ্ছিলেন। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় নির্দেশনা ও জেলা কমিটির নির্দেশনায় তিনি ইউনিয়ন কমিটি করতে গেলে বঞ্চিতরা সংগঠিত হয়ে বিভিন্ন ইউনিয়নে পাল্টা কমিটি ঘোষণা করছেন। কিছুদিন আগে তাঁরা আজিজুর রহমানকে আহ্বায়ক করে উপজেলায় পাল্টা আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করেন। আজ মঙ্গলবার আজিজুর রহমানের নেতৃত্বাধীন পক্ষই পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করায় ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন। জামালগঞ্জ উপজেলা বিএনপির একাংশের আহ্বায়ক আজিজুর রহমান বলেন, নূরুল হক আফিন্দী দায়িত্ব পেয়ে দলকে আত্মীয়করণ করে পকেট কমিটি করছেন। তিনি ত্যাগী ও নিবেদিতদের দূরে রাখায় তাঁরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাঁকে প্রতিরোধের ডাক দিয়েছেন। বিএনপিকে আত্মীয়করণ ও স্বজনপ্রীতি থেকে রক্ষা করতে আমরা শহীদ জিয়ার সৈনিকরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছি।

নূরুল হক আফিন্দী বলেন, জামালগঞ্জের বিএনপি’র অগ্রগতিকে বাধা দিতে বিএনপি নামধারী সরকার দলের দালালরা বারবার প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছে। তাঁরা সরকার দলের সুবিধা নিয়ে নব্য বিএনপি সেজে দলকে বাধাগ্রস্ত করতে চাচ্ছে। জামালগঞ্জে তাদের সেই খায়েশ পূর্ণ হবে না। আজ (মঙ্গলবার) ১৪৪ ধারা জারিকৃত এলাকার বাইরে গিয়ে আমরা কাউন্সিল সম্পন্ন করব।

Print Friendly, PDF & Email