বেগম জিয়ার মুক্তির আন্দোলন বলে কয়ে আসবে না: আমীর খসরু

0
319

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, দেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণের জন্য, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য যে আন্দোলন সৃষ্টি হবে, সে আন্দোলন বলে কয়ে আসবে না। পানি যেমন তার গতি বেছে নেয়, আন্দোলনও তার গতি বেছে নেয়। আন্দোলন আসবে, দেশ মুক্ত হবে, খালেদা জিয়া মুক্ত হবেন। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ কারাগারে থাকা দলের সব নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় এসব কথা বলেন আমীর খসরু। জিয়া পরিষদ ওই সভার আয়োজন করে।

আন্দোলন কখনো বলে কয়ে আসে না উল্লেখ করে আমীর খসরু বলেন, ‘দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে হবে। সেটার আন্দোলন কী হবে, কর্মসূচি কী হবে, সেটা সময়ই বলে দিবে। অনেকে বলেন, রোজার পরে, ঈদের পরে আন্দোলন হবে! আন্দোলন কখনো বলে কয়ে হয় না।’

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আরো বলেন, ‘তারা অন্যায়ভাবে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে জেলে রেখেছে। এর উত্তর দেশের মানুষকে দিতে হবে। গণতন্ত্র, মানবাধিকার, আইনের শাসন কীভাবে ফিরিয়ে দেবে, তাদেরকে প্রমাণ করতে হবে।’

দেশের মানুষ খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে উল্লেখ করে আমীর খসরু বলেন, ‘আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমে জনগণ তাদের মালিকানা বারবার আদায় করেছে। বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে কেউ যদি মনে করে, তারা গণতন্ত্রের পথ রুদ্ধ করে দেবে, তাহলে তারা বোকার রাজ্যে বসবাস করছে। দেশের মানুষ খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে। তাঁকে মুক্ত করে আবার জয়ে পথে ফিরে যেতে হবে।’

বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানোর কিছু নেই উল্লেখ করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন যে, বিএনপি কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে? আমি বলি, বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানোর প্রশ্ন আসছে না। যারা ক্ষমতা দখল করেছে তারা কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে, তাদেরকে চিন্তা করতে হবে। তারা আবার এই দেশের মানুষের কাছে কীভাবে ফিরে যাবে, তাদেরকে চিন্তা করতে হবে।’

আমীর খসরু আরো বলেন, ‘বিএনপি যে পথে চলছে, যে পথ দিয়ে বিএনপি চলা শুরু করেছে, সেই পথে আছি, সেই পথেই আমরা চলব। বিএনপির পথ গণতন্ত্র ও মানবাধিকার, আইনের শাসন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও জীবনের নিরাপত্তার পথ। এই পথ থেকে বিএনপি বিচ্যুত হয়নি, সামনেও হবে না। যারা বিচ্যুত হয়েছে, তারা কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে এটাই হচ্ছে আজকের আলোচ্য বিষয়।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য আরো বলেন, ‘যতদিন দেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রবর্তন না হয়, আইনের শাসন ফিরে না আসে, বাক স্বাধীনতা ফিরে না আসে, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ফিরে না আসে, মৌলিক অধিকার ফিরে না আসে, আমরা আমাদের পথে চলব। এটাই জয়ের পথ, ন্যায়ের পথ, জনগণের পথ।’

এ সময় আয়োজক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য কবীর মুরাদ ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email