ভারতের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে হবে: সৈয়দ আশরাফ

0
160

ঢাকা: ভারতের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকারের আহবান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, সে দেশ থেকে বাংলাদেশে ফিরেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় অনেকে বলেছিলেন, ভারত থেকে দেশে ফিরলে বিভিন্ন কথা হবে। কিন্তু শেখ হাসিনা বলেছেন, না। মুক্তিযুদ্ধে এ দেশ আমাদের পাশে ছিল। সুতরাং লন্ডন থেকে ভারত হয়ে বাংলাদেশে ফিরবো এবং তিনি সেটাই করেছেন। তাই ভারতের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে হবে।

মঙ্গলবার শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় এ কথা বলেন। দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন দলের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

সৈয়দ আশরাফ বলেন, ঘাতকরা যখন বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে তখন শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা জার্মানি ছিলেন। এরপর তিনি (শেখ হাসিনা) লন্ডনে আসেন। আওয়ামী লীগ তখন ছিল ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন। সে সময় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সুশৃঙ্খল হয়।

শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছিলো। সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু নির্মাণে হাত দিয়েছেন। এ সেতুর নির্মাণ কাজ ইতিমধ্যে অনেক দূর এগিয়েছে। আসলে শেখ হাসিনা বাপের বেটি। তিনি ভাঙবেন, তবু মচকাবেন না।

শেখ সেলিম আরো বলেন, তিনি (শেখ হাসিনা) অসম্ভব কাজকে সম্ভব করে যাচ্ছেন। যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি কার্যকর না করার জন্য মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী জন কেরি শেখ হাসিনাকে ফোন করেছিলেন। তারপরও শেখ হাসিনা ফাঁসি কার্যকর করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email