মোহনগঞ্জে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত, বাড়ীতে অগ্নি সংযোগ

0
224

বিশেষ প্রতিনিধি: নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার বিরামপুর গ্রামের জিয়াউর রহমান নামের এক যুবককে মারাত্বকভাবে রামদা ও কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। ঘটনার চারদিন পরেই তার বাড়ীতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয় তার বসতভিটা।

সরেজমিনে পর্যবেক্ষনে জানা যায়, গত মঙ্গলবার ২৯শে সেপ্টম্বর সকাল বেলায় বিরামপুর গ্রামের মোঃ হান্নান এর পুত্র জিয়াউর রহমান তার নিজ জমিতে সার প্রয়োগ করে ফিরে আসার সময় একই গ্রামের তোতা মিয়ার পুত্র জামাল, কামাল ও সিদ্দিক মিয়ার পুত্র জানু মিয়া তার উপর দাড়ালো অস্ত্র দিয়ে আর্তর্কিত হামলা করে। দাড়ালো রামদা  ও কুড়ালের কুপে জিয়াউর রহমানের ২হাত ক্ষত বিক্ষত হয়ে যায়। জিয়াউর রহমানের চিৎকার  শুনে আশেপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। আঘাত গুরুতর দেখে সেখান থেকে জিয়াউর রহমানকে দ্রুত বাংলাদেশ পঙ্গু হাসপাতালে  স্থানান্তরিত করা হয়। একই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত রবিবার সকাল আনুমানিক ৯টার দিকে জিয়াউর রহমানের অনুপস্থিতে ফাঁকা বাড়ীর সুযোগ নিয়ে তার বাড়ীতে ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ করে। পরবর্তীতে এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়। পরিদর্শনে জিয়াউর রহমানের পুড়ে যাওয়া বাড়ীতে পুলিশের পাহাড়া দেখা গেলেও জিয়াউর রহমানের পক্ষ থেকে মামলা করতে গেলে মোহনগঞ্জ থানায় মামলা নিতে নারাজ।

এলাকাবাসীর দেখা তথ্য মতে, জিয়াউর রহমানের উপর হামলা মুলত পূর্ব শত্র“তার জের ধরেই করা হয়।  এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত এখনো অগ্নি সংযোগ বিষয়ে কোন মামলা থানায় ডায়েরী হয়নি। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে কোন সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না।

Print Friendly, PDF & Email