যুদ্ধাপরাধের দায়ে এবার শামসুদ্দিন গ্রেপ্তার

0
161

Tribunal 01

ঢাকা: মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া দুই ভাইয়ের মধ্যে শামসুদ্দিন আহমেদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালের দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মুক্তিযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ করায় কিশোরগঞ্জ জেলার দুই ভাই নাসিরউদ্দিন আহমেদ ও শামসুদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলির কার্যালয়ে জমা দেওয়া হয়।
রাজধানীর পুরনো হাইকোর্ট ভবনে স্থাপিত প্রধান কৌঁসুলির কার্যালয়ে এ প্রতিবেদন জমা দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা।
তদন্ত সংস্থার তদন্তকারী কর্মকর্তা আতাউর রহমান রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি সৈয়দ হায়দার আলীর কাছে ৪৫০ পৃষ্ঠার এ প্রতিবেদন জমা দেন। প্রতিবেদন জমা দিয়ে তদন্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান আসামি নাসিরউদ্দিন আহমেদ ও শামসুদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আর্জি জানান।
চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় নাসিরউদ্দিন ও শামসুদ্দিন দখলদার পাকিস্তানি বাহিনীর সহায়তায় কিশোরগঞ্জ এলাকায় হত্যা, গণহত্যা, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগসহ মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটন করেন। তাদের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধে পাঁচটি অভিযোগ চূড়ান্ত করা হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, নাসিরউদ্দিন ও শামসুদ্দিন দুই ভাই। তাদের বিরুদ্ধে ২০১৩ সালের ৬ জুন তদন্তকাজ শুরু হয়। দীর্ঘ ১ বছর ৫ মাস ১৮ দিন তদন্ত করে গত ২৪ নভেম্বর তদন্তকাজ শেষ হয়। তাদের বিরুদ্ধে ৬০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। সাক্ষী করা হয়েছে ৪০ জনকে।
আরও বলা হয়, আসামি নাসিরউদ্দিন ও শামসুদ্দিন কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার বিদ্যানগর, আয়লা, ফতেপুর বিল ও কিরাটন বিলসহ আশপাশের কয়েকটি গ্রামে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও রাজাকার বাহিনী নিয়ে অত্যাচার-নির্যাতনসহ মানবতাবিরোধী অপরাধ করেন।

Print Friendly, PDF & Email